ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২

সম্পদ দখলে নিতে ভগ্নিপতিকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ শ্যালকের বিরুদ্ধে

প্রকাশ: ২০২২-০৩-০৪ ২২:৩২:২০ || আপডেট: ২০২২-০৩-০৪ ২২:৩৮:৩৮

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজারের উখিয়ায় সম্পদ দখলে নিতে নিজের ভগ্নিপতিকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে শ্যালকের বিরুদ্ধে । এ ঘটনায় ষড়যন্ত্রের শিকার আটক আব্দুল মাবুদ দুলাল (৭০) এর নি:শর্ত মুক্তির দাবী তুলেছে পালংখালীর সর্বস্তরের মানুষ।

পাশাপাশি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত পূর্বক প্রকৃত দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

অভিযোগে প্রকাশ, জমি সংক্রান্ত পরিবারিক বিরোধের জের ধরে গত ২৩ ফেব্রুয়ারী দিবাগত রাতে মুরগীর ঘরে ২০ হাজার পিস ইয়াবা দিয়ে বিজিবির মাধ্যমে আব্দুল মাবুদ দুলালকে আটক করে। পরে উখিয়া থানায় সোপর্দ করে। যার উখিয়া থানার মামলা নম্বর ৯৮/২২ যাহার জি.আর মামলা নং-২৩৩/২২ উখিয়া।

ষড়যন্ত্রের শিকার আব্দুল মাবুদ দুলাল পালংখালী ইউনিয়নের পশ্চিম ফারিরবিল এলাকার মৃত আব্দুস সত্তার মিয়ার ছেলে।

দুলালের ছেলে তারেকুজ্জমান নয়ন জানায়, তার পিতাকে ষড়যন্ত্রমূলক ইয়াবা দিয়ে বিজিবির মাধ্যমে ফাঁসিয়ে দিয়েছে আপন মামা জসিম উদ্দিন। সে মৃত বদিউজ্জামানের ছেলে। অভিযুক্ত জসিম মাদক ও ডাকাতিসহ ৭টি পলাতক মামলার আসামী। যার মামলা নম্বর সমূহ জি.আর মামলা নং- ৩১/৯৩৩ উখিয়া, জি.আর মামলা নং- ৩৪৩/১৬ নাইক্ষংছড়ি বান্দরবান, জি.আর মামলা নং- ৩২০/১৬ নাইক্ষংছড়ি বান্দরবান, এফ.আই.আর নং- ১২/১২-১৩ লোহাগাড়া, চট্টগ্রাম, এফ.আই.আর নং- ৪৩/১০৫ উখিয়া থানা, উখিয়া সাধারণ ডায়েরী নং-১৪০৯।

সরেজমিনে জানা গেছে, পেশাগত জীবনে দুলাল স্ট্যাম্প ভেন্ডার ও দলিল লিখক। ইতোপূর্বে তিনি দীর্ঘদিন শিক্ষকতা করেছেন। তার এক মেয়ে কানিজ ফাতেমা চট্টগ্রামের এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর ওমেন এর ৪র্থ বর্ষের নিয়মিত ছাত্রী। দুলাল কোন অপরাধে জড়িত নয়। তার সাথে অন্য করা হচ্ছে। এভাবে নিরপরাধ একজন মানুষের সাথে অন্যায় হলে স্বয়ং আল্লাহও নারাজ হবেন। কথা গুলো বলছিলেন, মানববন্ধনে অংশ নেয়া অসংখ্য প্রবীণ মানুষ। শত শত মানুষের সাথে দুলালের নি:শর্ত মুক্তি চেয়েছেন সাবেক জেলা ছাত্রলীগ নেতা ও চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহদাৎ হোসেন জুয়েল, স্থানীয় ইউপি সদস্য মোহাম্মদ ফয়েজ।

এছাড়াও অভিযুক্ত জসিম উদ্দিন সম্পর্কে ভাগ্নী কানিজ ফাতেমা বলেন, বহু মামলার আসামী জসিম এপিবিএন হাতে আটক হয়ে কারা ভোগ করে সম্প্রতি জামিনে এসে পুনরায় মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে। সে তার আপন বোন জয়নাব আক্তার কাজল ও তার স্বামী দুলালের সম্পদ দখলে নিতে বিজিবির মাধ্যমে নিজের ভগ্নিপতিকে ফাসিয়ে দিয়েছে। তাকে মামা বলতেও আমার লজ্জা লাগছে। তার কারণে আমার পরিবার অসহায় আজ। সে প্রতিদিন আমিসহ পরিবারের সদস্যদের  প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে।

কানিজ তার পিতার বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ভাবে ষড়যন্ত্র মুলক মামলার তদন্ত পুর্বক আসল রহস্য উদঘাটন করে প্রকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য উর্ধতন প্রশাসনসহ প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করেন।

এ ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত জসিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ না পাওয়ায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

কক্সবাজার-৩৪ বিজিবির পালংখালীতে দায়িত্বরত নায়েক জিয়াউর রহমান-৬২০৮৩ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ব্যস্ততার কথা বলে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেন।