ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২

উখিয়ায় পাহাড় খেকো সন্ত্রাসীদের হামলায় বিট কর্মকর্তা আহত!

প্রকাশ: ২০২২-০২-২৬ ০০:৩০:৩২ || আপডেট: ২০২২-০২-২৬ ০০:৩১:১৩

মোহাম্মদ ইমরান খান:

কক্সবাজারের উখিয়ায় পাহাড় খেকো সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত বিট কর্মকর্তাসহ কয়েকজন।

২৫ ফেব্রুয়ারী (শুক্রবার) দুপুর ১২.৩০ মিনিটের সময় উখিয়া রাজাপালং ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ড়ের হরিণমারা বাগানের পাহাড় হেলালের ঘোনা নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ইনানী রেঞ্জের আওতাধীন রাজাপালং বনবিটের বিট কর্মকর্তা ক্যাসিং মারমার নেতৃত্বে ৫/৬ জনের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পাহাড় খেকোদের বিরুদ্ধে অভিযানে গেলে একদল সন্ত্রাসী পরিকল্পিত ভাবে তাদের উপরে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে একজন গুরুতর আহত হয়। বর্তমানে তিনি উখিয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন জানিয়েছেন, এসব পাহাড় খেকোরা দীর্ঘ একযুগ ধরে বনবিভাগের পাহাড়ে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে কৃত্রিম বালু তৈরি করে এবং অবৈধ ভাবে পাহাড় কেটে জমি ভরাট করে আসছে।

এতে প্রতি বছর সরকারের কোটি কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বালু মাটি বিক্রি করে যাচ্ছে। ধ্বংস হচ্ছে পরিবেশ। এইসব সরকার বিরোধী পাহাড় খেকো সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে বনবিভাগের কর্মকর্তারা অভিযান চালালে তাদের উপর বারবার অতর্কিত সন্ত্রাসী হামলা হয়।

স্থানীয়রা আরো জানায়, পাহাড় খেকো সিন্ডিকেটটি অনেক শক্তিশালী। তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার মতো সাহস কারোর নেই বললে চলে।

কেননা, তাদের পিছনে সরকার দলীয় কিছু জনপ্রতিনিধি এবং বনবিভাগের গুটিকয়েক কর্মকর্তাদের মতন অনেক অদৃশ্য শক্তি লুকিয়ে আছে। কাজেই পাহাড় খেকোরা যে, কোন সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করতে কাউকে ভয় করে না।

এ ব্যাপারে উখিয়া রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম বলেন, বিট কর্মকর্তাসহ কয়েকজন পাহাড় খেকোদের হামলার শিকার হয়েছে। এদের একজনের অবস্থা গুরুতর। তিনি বর্তমানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা সন্ত্রাসী হামলার বিষয়টি ইতিমধ্যে ইউএনও মহোদয়কে অবহিত করেছি। দ্রুত সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিজাম উদ্দিন আহমেদ বলেন, রাজাপালং বিটের ফরেস্ট ডিপার্টমেন্টের লোকজনে উপর অতর্কিত হামলার বিষয়ে শুনেছি। যারা ঘটনার সাথে জড়িত তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।