ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২

উখিয়ায় পাহাড় কাটার সময় মাটি চাপায় নিহত-১, আহত-১

প্রকাশ: ২০২২-০২-০১ ১৬:২৯:১৩ || আপডেট: ২০২২-০২-০১ ১৬:২৯:৩৭

# মাসোহারা দিয়ে পরিবেশের বারোটা বাজাচ্ছে অবৈধ ডাম্পার সিন্ডিকেট।
# দায়সারা ভাবে চলছে পরিবেশ অধিদপ্তরের কার্যক্রম।
# বন বিভাগ আছে-আছে, নাই-নাই।
নিজস্ব প্রতিবেদক
কক্সবাজারের উখিয়ায় অসময়ে পাহাড় কাটার সময় মাটি চাপা পড়ে ছৈয়দ হোসেন (৪৫) নামের এক শ্রমিক নিহত হয়েছে। এসময় গুরুতর আহত হয়েছে আরো একজন।
নিহত শ্রমিক রাজাপালং ইউনিয়নের টাইপালং এলাকার লাল মিয়ার ছেলে।
মঙ্গলবার সকাল ৯টায় রাজাপালং ইউনিয়নের পূর্বডিগলিয়া পালং এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় চার-পাঁচজন শ্রমিক পশ্চিম ডিগলিয়াপালংয়ের ইমাম হোসেনের ডাম্পারে গাড়িতে মাটি ভর্তি করা জন্য পূর্বডিগলিয়াপালং এলাকার মৃত আলী মিয়ার ছেলে সিরাজ মিয়ার পাহাড়ের মাটি কাটতে গেলে উপর থেকে মাটি এসে দুজন শ্রমিক নিচে চাপা পড়ে।
এসময় অন্যান্য শ্রমিকরা দ্রুত তাদের উদ্ধার করে উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ছৈয়দ হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন।
তখন গুরুতর আহত অবস্থায় ফিরোজ আহাম্মদ (৫০) নামে আরেক শ্রমিককে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সে রত্নাপালং ইউনিয়নের চাকবৈঠা গ্রামের নুর আহাম্মদের ছেলে।
এ ব্যাপারে উখিয়ার রেঞ্জ কর্মকর্তা গাজী শফিউল আলম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি মিটিংয়ের কারণে কক্সবাজারে অবস্থান করছে বলে জানায়। তবে বিট কর্মকর্তার বরাত তিনি বলেন, ঘটনাস্থল বন বিভাগের আওতার বাইরে। যেহেতু ঘটনাটি জোত মালিকানাধীন পাহাড় কাটার সময় হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে আইনী পদক্ষেপ নেয়ার জন্য পরিবেশ অধিদপ্তর কিংবা অন্যান্য প্রশাসন রয়েছে।
কক্সবাজার পরিবেশ অধিপ্তরের উপ-পরিচালকের অফিসিয়াল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও রিসিভ না করায় তাঁর বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।
উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহাম্মদ সঞ্জুর মোরশেদ বলেন, পাহাড়ের মাটি চাপা পড়ে একজন শ্রমিকের মৃত্যুর খরব পেয়েছি। পরিবার সাথে কথা বলে পরবর্তী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
সুশীল সমাজের দাবী, প্রতিনিয়ত মাসোহারার বিনিময়ে বন উজাড়, পাহাড় নিধন করে চলেছে অবৈধ ডাম্পার সিন্ডিকেট। যার ফলে এসব দেখেও না দেখার ভান করে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও বন বিভাগ।