ঢাকা, বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২

বাবাকে হত্যা করে সেপটিক ট্যাংকিতে লাশ লুকিয়ে রাখলো ছেলে

প্রকাশ: ২০২২-০১-০৩ ০৯:৫০:১৭ || আপডেট: ২০২২-০১-০৩ ০৯:৫০:১৭

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

খুলনার রূপসা উপজেলার শোলপুরে বাবাকে হত্যার পর বাড়ির সেপটিক ট্যাংকে সাত মাস লাশ লুকিয়ে রাখলো বড় ছেলে নিয়ামুল ইসলাম তানভীর। ​বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকালে নিহতের ছোট ছেলের তথ্য অনুযায়ী গলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

​এ ঘটনায় তানভীর (১৮) ও তার সহযোগী জুম্মনকে (৪০) আটক করা হয়েছে। বিকালে বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত এনামুল হক (৫০) শোলপুরের বাসিন্দা ছিলেন।

রূপসা থানার ওসি সরদার মোশাররফ হোসেন বলেন, চলতি বছরের ৯ মে বাবার মাথায় শিল দিয়ে আঘাত করে হত্যা করে তানভীর। পরে সহযোগী জুম্মনকে নিয়ে লাশ বাড়ির শৌচাগারের সেপটিক ট্যাংকে লুকিয়ে রাখে। পরবর্তী সময়ে এনামুল হক কোথাও চলে গেছেন কিংবা পানিতে পড়ে মারা গেছেন বলে এলাকায় প্রচারণা চালায় তানভীর। এনামুল হক আগে থেকে মৃগী রোগী হওয়ায় স্থানীয়রা তার কথা বিশ্বাস করেন। বুধবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে ছোট ভাই নাঈমকে মারধর করে তানভীর।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে নাঈম বাবাকে হত্যার কথা সবাইকে জানিয়ে দেয়। পরে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। নাঈমের তথ্য অনুযায়ী সেপটিক ট্যাংক থেকে গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

ওসি সরদার মোশাররফ হোসেন বলেন, বিষয়টি জানার পর তানভীরকে গ্রেফতারের অভিযান শুরু করলে আসামি ও তার সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়।

সিএসবিটুয়েন্টিফোর-৩/১/২২-ঢ,