ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

কে হচ্ছেন হলদিয়ার চেয়ারম্যান!

প্রকাশ: ২০২১-১১-২৮ ২৩:০১:২৪ || আপডেট: ২০২১-১১-২৯ ০০:৩১:১৬

 

গফুর মিয়া চৌধুরী:
কক্সবাজারের উখিয়া হলদিয়াপালং ইউপির স্থগিত একটি কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ আগামী ৩০ নভেম্বর। আজ ছিল নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিন। কে হচ্ছেন হলদিয়ার চেয়ারম্যান? পুরো উখিয়াবাসীর চোখ হলদিয়াপালং ৫নং ওয়ার্ডের পুন: নির্বাচনের ফলাফলের দিকে।

তবে রোববার (২৮ নভেম্বর) শেষ দিনে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী অধ্যক্ষ শাহ আলমের জয়ের লক্ষে কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ জেলা-উপজেলার অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

৫নং ওয়ার্ড পুন: নির্বাচনের শেষ জনসভায় কোথাও তিল পরিমান ঠাঁই ছিলো না। ওই এলাকার ভোটার ছাড়াও হাজারো মানুষের উপস্থিতি জনসমুদ্রে রূপ নেয়।

সবার একটি বক্তব্য ছিল উন্নয়ন অগ্রগতির প্রার্থী শাহ আলমের নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

অসমাপ্ত উন্নয়ন প্রকল্প শেষ করতে চাইলে নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

শেখ হাসিনার সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

ওবায়দুল কাদের এর সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

শাহ আলমের সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

এসএম ছৈয়দ আলমের সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

নুরুল হুদার সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

রাশেদ মোহাম্মদ আলীর সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

আদিল উদ্দিন চৌধুরীর সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

কক্সবাজার জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হক সোহেল এর সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

কক্সবাজার জেলা মহিলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা লুনার সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরীর সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

শহীদ এ টি এম জাফর আলম পরিবারের সালাম নিন, নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

অপরদিকে নৌকার মনোনয়ন বঞ্চিত স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের ইমরুল কায়েস চৌধুরীর পক্ষে প্রচারণায় নেমেছে নব-নির্বাচিত কয়েকজন ইউপি সদস্য এবং সুযোগ সন্ধানী মুখোশধারী নব্য আওয়ামীলীগ নেতা।

এছাড়াও ঘোড়া প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আমিনুল হক আমিন মেম্বার।

গত ১১ নভেম্বর উখিয়ার পাঁচটি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় হলদিয়াপালং ইউনিয়নে একটি কেন্দ্রে ব্যালট বাক্স ছিনতাইয়ের ঘটনায় নির্বাচনী ফলাফল চুড়ান্ত হয়নি এমনটি জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিজাম উদ্দিন আহমেদ।

তবে ৮টি কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফলে অধ্যক্ষ শাহ আলম এর নৌকা প্রতীকের চেয়ে ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমরুল কায়েস চৌধুরী ৪৭০ ভোটের ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে বলে দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে।

পুরো উপজেলার ৪৯টি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও ৩নং হলদিয়াপালং ইউনিয়নের নলবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় একটি কেন্দ্রে সংঘর্ষের ঘটনায় ফলাফল স্থগিত করা হয় এমনটি জানিয়েছেন জেলা নির্বাচন অফিসার শাহাদাত হোসেন। স্থগিত ওই কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা- ৩৩০৫।

সিএসবি টুয়েন্টিফোর, ২৮/১১