ঢাকা, সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২

ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরির সরঞ্জামাদিসহ সঙ্ঘবদ্ধ চক্রের ৫ সদস্য গ্রেফতার

প্রকাশ: ২০২২-০৭-২১ ১৬:০৭:৪৩ || আপডেট: ২০২২-০৭-২১ ১৬:০৭:৪৩

এইচ.কে রফিক উদ্দিনঃ
কক্সবাজারের উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে ভুয়া জাতীয় পরিচয়পত্র, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও বিভিন্ন জাল সনদপত্র এবং এসব তৈরির সরঞ্জামসহ পাঁচজনকে আটক করেছে ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন ।আটককৃতদের উখিয়া থানায় সোর্পদ্দ করা হয়।

বুধবার (২০ জুলাই) রাতে উখিয়ার লম্বাশিয়া ১ নম্বর ক্যাম্পে আবদুল্লাহ নামক এক রোহিঙ্গার বসতঘর থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলো মোহাম্মদ ইসলামের ছেলে মো. আবদুল্লাহ (৩৭),মুসা খলিলের ছেলে আবুল খায়ের(১৮), হাবিবের ছেলে মোহাম্মদ ত্বালহা(৬০),তার ভাই মোহাম্মদ হারুন(৩৬)। এরা উখিয়ার লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প -১ডাব্লিউ বাসিন্দা। অপর একজন টেকনাফের শাহপরীর দ্বীপ এলাকার সৈয়দ হোসেনের ছেলে মোহাম্মদ ইসমাইল(৪৫)।

গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ৮ আর্মড পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কামরান হোসেন। তিনি বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা রোহিঙ্গাদের ঘরে বসে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে অল্প সময়ের মধ্যে ভুয়া এনআইডি কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, বিভিন্ন প্রকার জাল সনদ তৈরি করে আসছিলেন।

এ ধরনের ভুয়া জাল সনদ ও আইডি তৈরির তথ্য পেয়ে আমরা গোয়েন্দা নজরদারি বাড়াই। অভিযান চালিয়ে চক্রের পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অভিযানে চারটি ল্যাপটপ, আটটি স্মার্টফোন, চারটি পেনড্রাইভ, দুটি স্ক্যানার-প্রিন্টার ও চেকবইসহ বিপুল পরিমাণ ভুয়া এনআইডি, ড্রাইভিং লাইসেন্স ও বিভিন্ন জাল সনদপত্র জব্দ করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তারা প্রাথমিকভাবে স্বীকার করেন, দীর্ঘদিন ধরে তারা সাধারণ রোহিঙ্গাদের অবৈধভাবে নকল বাংলাদেশি জাতীয় পরিচয় পত্র, জন্ম নিবন্ধন ও পাসপোর্ট তৈরি করে দিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ উপার্জন করেছেন।

সাধারণ রোহিঙ্গারা মূলত বাংলাদেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করে বিভিন্ন সরকারি সুযোগ-সুবিধা গ্রহণ এবং বিদেশে গমনের জন্য পাসপোর্ট তৈরির লক্ষ্যে চক্রটিকে মোটা অঙ্কের টাকা দেয়।