ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

গৃহবধুকে মারপিট করে মাথার চুল কেটে নির্যাতন

প্রকাশ: ২০২২-০৭-১৯ ১১:০৯:৪২ || আপডেট: ২০২২-০৭-১৯ ১১:০৯:৪২

মোঃ-হাবিবুর রহমান, নওগাঁ::

নওগাঁর রাণীনগরে ১৯ বছর বয়সি এক গৃহবধুকে মারপিট করে মাথার চুল কেটে নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।

খবর পেয়ে থানা পুলিশ রোববার রাতেই গ্রামবাসির সযোগিতায় শ্বশুর, ভাসুর ও ননদকে আটক করেছে।

এ ঘটনায় সোমবার রাণীনগর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার একডালা ইউনিয়নের কালীগ্রাম কয়াপাড়া গ্রামে।

ভুক্তভোগী গৃহবধু জানান,গত বৃহস্পতিবার রাতে তার স্বামী প্রতিবেশি এক বন্ধুকে দাওয়াত করে বাড়ীতে নিয়ে আসে। ওই রাতে সবাই মিলে খাওয়া দাওয়া শেষ করে ঘরের মধ্যে বসে সবাই মিলে গল্প করছিল।

এ সময় বাড়ীর লোকজন ওই বন্ধুর সাথে গৃহবধুর অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে সন্দেহ করে দরজার শিকল আটকে দেয়। এ ঘটনায় বিষয়টি নিয়ে পারিবারিকভাবে দ্বন্দ্ব হলে পরিবারের লোকজন গৃহবধু ও তার স্বামীকে ঘর থেকে বের করে দিয়ে দরজায় তালা লাগিয়ে দেয়। সারা রাত বাড়ীর আঙ্গিনায় কাটিয়ে পরের দিন শুক্রবার গৃহবধু তার স্বামীকে নিয়ে বাবার বাড়ীতে বেড়াতে যায়।

এরপর রোববার সন্ধায় বাড়ীতে আসলে রাত অনুমান সাড়ে ৮টা নাগাদ শ্বশুর রাজ্জাক সিপাই (৬৫),ভাসুর দেলোয়ার হোসেন (৪০) ও ননদ রাজিয়া সুলতানা (৪৫) মিলে গৃহবধু ও তার স্বামীকে মারপিট শুরু করে। একপর্যায়ে গৃহবধুকে মাটিতে ফেলে বটি দিয়ে মাথার চুল কেটে দেয়।

এ সময় স্থানীয় লোকজন জানতে পেরে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে রাণীনগর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) সেলিম রেজা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে রাতেই অভিযান চালিয়ে গ্রামবাসির সহযোগিতায় গৃহবধুকে উদ্ধার ও অভিযুক্ত ওই তিনজনকে আটক করে।

রাণীনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন,গৃহবধুকে মারপিট করে মাথার চুল কেটে দেয়ার অভিযোগে ভুক্তভোগী গৃহবধু বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। আটক তিনজনকে এমামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
মোঃ হাবিবুর রহমান