ঢাকা, বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২

মহিষ চুরির বিষয়ে থানায় অভিযোগ করায় অভিযোগকারীর উপর সন্ত্রাসী হামলা

প্রকাশ: ২০২২-০৭-১৯ ০২:০৫:৩৩ || আপডেট: ২০২২-০৭-১৯ ০২:০৫:৩৩

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজারের উখিয়া কোটবাজার স্টেশনে গভীর রাতে মহিষ চুরির বিষয়ে থানায় অভিযোগ করায় অভিযোগকারীর উপর হামলা করেছে সন্ত্রাসীরা।

এ ঘটনায় থানায় ন্যায় বিচারের আশায় পুনরায় অভিযোগ করেছেন হামলার শিকার জাহাঙ্গীর আলম। সে রত্নাপালং ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মাষ্টার মাহবুবুল আলমের ছেলে।

সোমবার (১৮ জুলাই) সন্ধ্যা ৭ টার দিকে কোটবাজার পশ্চিম স্টেশনের বৌদ্ধ মন্দির এর পাশের একটি দোকানে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটি ঘটেছে।

অভিযোগে প্রকাশ, একদল সন্ত্রাসী পূর্বপরিকল্পিত ভাবে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে দোকানে অতর্কিত হামলা চালিয়ে জাহাঙ্গীর আলম (৪১) কে এলোপাতাড়ি আঘাত করে গুরুতর জখম করেন। এ সময় সন্ত্রাসীরা তার দোকান ভাঙচুর করে ড্রয়ার থেকে ৩০ লক্ষ টাকা লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে।

এর আগে ১৫ জুলাই গভীর রাতে উখিয়া উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়ন এর পশ্চিমরত্না বৌদ্ধ মন্দির সংলগ্ন ক্ষতিগ্রস্থ জাহাঙ্গীর আলম এর বসত বাড়ির উঠান থেকে ১ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা দামের একটি মহিষ চুরি হয়ে যায়।

পরে, মালিক পক্ষ মহিষটি খুঁজাখুজি করলে বেলাল উদ্দিন এর ছেলে মোঃ রকি স্বাক্ষীগনের সম্মুখে মহিষটি চুরি করার বিষয়ে স্বীকার করেন এবং তার সাথে শামশু আলমের ছেলে মোঃ ইয়াসিনও ছিল বলে জানায়।

এ ঘটনায় মহিষের মালিক জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে মোঃ রকি ও মোঃ ইয়াসিন’সহ অজ্ঞাত ২/৩ জনের বিরুদ্ধে উখিয়া থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন।

উক্ত অভিযোগ এর সত্যতা যাচাই-বাছাই করতে ১৮ জুলাই পুলিশ তদন্ত গেলে, পুলিশি তদন্তের রেশ ধরে জাহাঙ্গীর আলম এর উপর সন্ত্রাসীরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে মারাত্মক ভাবে আহত করেছে।

এ বিষয়ে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মোহাম্মদ আলীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কেউ যদি হামলার বিষয়ে নিয়ে অভিযোগ করেন অবশ্যই হামলাকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগতভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।