ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

একটি জাতি-গোষ্টির জন্য নয়, সমস্ত প্রাণীর কল্যাণে সদ্ধর্ম প্রচার করেছেন “বুদ্ধ”

প্রকাশ: ২০২২-০৫-১৫ ১৫:৩৩:০৩ || আপডেট: ২০২২-০৫-১৫ ১৫:৪২:৫৩

পলাশ বড়ুয়া:
বিশ্ব বৌদ্ধদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শুভ “বুদ্ধ পূর্ণিমা” আজ। সারাদেশের ন্যায় কক্সবাজারের উখিয়ায় ধর্মীয় ভাবগাম্ভীয্যে দিবসটি পালন করা হয়।
বুদ্ধ পূর্ণিমার শান্তি শোভাযাত্রার র‍্যালী
‘জগতের সকল প্রাণী সুখী হোক’ এই অহিংস বাণীর প্রচারক সিদ্ধার্থ গৌতমের জন্ম, বুদ্ধত্ব লাভ এবং মহাপরিনির্বাণ ত্রি-স্মৃতি বিজড়িত এই দিবসটিকে নানা আনুষ্ঠানিকতায় উদযাপন করেন বৌদ্ধরা।
এবারও বুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে ১৫ মে রাষ্ট্রীয় ছুটি ছিল। এ দিনের শুরুতে কুতুপালং উচ্চ বিদ্যালয়ের শতাধিক গাড়ীর বহরে শান্তি শোভাযাত্রায় অংশ নেন হাজারো পূণ্যার্থী। র‍্যালীটি পুরাতন রুমখাঁ প্রাচীণ বৌদ্ধ শ্মশানে গিয়ে মিলিত হয়।
পরে উখিয়া ভিক্ষু সমিতির সভাপতি এস ধর্মপাল মহাথের’র সভাপতিত্বে প্রদীপ প্রজ্জলন সহকারে সংঘদান অনুষ্ঠিত হয়।
বুদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপন
সদ্ধর্ম দেশনা করেন জ্ঞানসেন ভিক্ষু শ্রামণ প্রশিক্ষণ ও সাধনা কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক শ্রীমৎ কুশলায়ন মহাথের, ইন্দ্রবংশ মহাথের, জ্যোতি প্রিয় থের, জ্যোতি লায়ন থের, ধর্ম ভিক্ষুসহ আরো অনেকে।
শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহাম্মদ সঞ্জুর মোর্শেদ, এড. অনিল কান্তি বড়ুয়া, তুষার বড়ুয়া, আশিষ বড়ুয়া, মেধু কুমার বড়ুয়া, রাহুল বড়ুয়া আদিত্য, রূপন বড়ুয়া,  বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের নেতা ও ইউপি সদস্য স্বপন শর্মা রনি।
এ সময় বক্তারা বলেছেন, বুদ্ধ সমগ্র মানব জাতির কল্যাণে সদ্ধর্ম প্রচার করেছেন। তাঁর প্রচারিত ধর্ম একটি জাতি-গোষ্টিকে ঘিরে নয়। তাই সমস্ত প্রাণী সুখ কামনা করেছেন।
উখিয়ায় বুদ্ধ পূর্ণিমার অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দিচ্ছেন ওসি আহাম্মদ সঞ্জুর মোর্শেদ
বক্তারা বলেছেন, প্রতিটি মানুষকে বুদ্ধের ধর্ম আচরণের মাধ্যমে মনের পশুত্বকে দমণ করার কথাও বলেছেন।
পূজা শেষে বিশ্ব শান্তি কামনায় সমবেত প্রার্থনায় অংশ নেয় বৌদ্ধ নর-নারীরা।