ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

ঈদের ছুটিতে রোহিঙ্গাদের অবাধ বিচরণ, তিন দিনে আটক ৬৪৫

প্রকাশ: ২০২২-০৫-০৬ ০১:৪৭:২২ || আপডেট: ২০২২-০৫-০৬ ০১:৪৭:২২

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ঈদকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারের উখিয়া-টেকনাফে আশ্রিত রোহিঙ্গারা অবাধ বিচরণ শুরু করেছে। রোহিঙ্গাদের বিচরণ বন্ধে সাড়াশি অভিযান চলমান আছে এমনটি দাবী করছে ক্যাম্পে নিয়োজিত এপিবিএন।

এদিকে গত তিনদিনে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ৬৪৫জন রোহিঙ্গাকে আটক করছে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

বৃহস্পতিবার (৫ মে) সকাল থেকে বেলা তিনটা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ক্যাম্প থেকে ২০৩ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দায়িত্বরত ৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন।

৮ এপিবিএন-এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ কামরান হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে চলমান সাড়াশি অভিযানে ৮ এপিবিএন-এর আওতাধীন ক্যাম্পসমূহের চেকপোস্ট সংলগ্ন বাইরের এলাকা এবং ক্যাম্প এলাকায় অবাধে আসা-যাওয়া করার সময় ২০৩ রোহিঙ্গা সদস্যকে আটক করা হয়েছে।

আটককৃতদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট ক্যাম্প-ইন-চার্জ (সিআইসি)দের মাধ্যমে মোবাইলকোর্ট পরিচালনা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারকরণ এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে রোহিঙ্গা সদস্যদের ক্যাম্প এলাকার বাইরে গমনরোধে এ সাড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ ধরনের অভিযান নিয়মিত পরিচালনা করা হলেও ঈদ উপলক্ষে তা জোরদার করা হয় যা চলমান থাকবে বলে তিনি জানান।

এর আগে ঈদ উপলক্ষে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ও আশপাশের এলাকায় ঘুরতে গিয়ে পুলিশের হাতে আটক হয় ৪৪৩ রোহিঙ্গা।

আটককৃতদের কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়। পরে তাদের ক্যাম্প ভিত্তিক তালিকা তৈরি করে শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের কাছে হস্তান্তর করার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রফিকুল ইসলাম।

এদিকে সড়কে সেনা চেকপোষ্ট না থাকায় রোহিঙ্গারা সহজে দেশব্যাপী ছড়িয়ে যাচ্ছে। যা দেশের জন্য মারাত্মক হুমকি স্বরূপ। এমনটি মনে করেন উখিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী।