http://www.csb24.com/archives/92103

ঢাকা, , বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১

কক্সবাজারে ৮ এপ্রিল থেকে তিনদিন ব্যাপী ডিসি সাহেবের বলী খেলা

প্রকাশ: ২০২১-০৩-২৫ ২২:৩৮:৪০ || আপডেট: ২০২১-০৩-২৫ ২২:৩৮:৪০

 

এম.এ আজিজ রাসেল:
কক্সবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামে বসছে ডিসি সাহেবের বলী খেলার ৬৫ তম আসর। এবার মেলা হবে ৩দিনব্যাপী। ৮ এপ্রিল থেকে বসবে মেলা।

বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) দুপুরে কক্সবাজার বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন স্টেডিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান ডিসি সাহেবের বলী খেলা ও মেলা-২০২১ বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) জাহিদ ইকবাল।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, করোনার বিষয় মাথায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ডিসি সাহেবের বলী খেলা ও মেলার আয়োজন করা হয়েছে। বলী খেলা ও মেলা উৎসবমুখর করতে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। মাস্ক ছাড়া স্টেডিয়ামে প্রবেশ করা যাবে না। এবারের আয়োজনে স্পন্সর হিসেবে রয়েছে দেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপ ও এস. এইচ আর ফ্রেন্ডস।

স্পন্সরকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন গ্রুপের হেড অব মার্কেটিং এফ.এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন বলেন, কক্সবাজারের ক্রীড়া উন্নয়নে ওয়ালটন গ্রুপ জেলা ক্রীড়া সংস্থার বিভিন্ন ইভেন্টে সহযোগিতা করে আসছে।

প্রতিবারের ন্যায় এবারও ডিসি সাহেবের বলী খেলা ও মেলায় আমরা পাশে থাকতে পেরে গর্বিত মনে করছি। খেলায় ১০ জন সেরা বলীকে সম্মাননা দেওয়া হবে। এছাড়া বলী খেলা শেষে ওয়ালটন গ্রুপের সহযোগিতায় শুরু হবে মহিলা বীচ ফুটবল টুর্নামেন্ট।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন বলেন, পর্যটন নগরী কক্সবাজারের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও বর্ণিল সংস্কৃতিতে ১৯৫৬ সালে এসডিও ও সাহেবের বলী খেলা ও মেলা সংযোজন হয়। তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের ইতিহাসে এসডিও সাহেবের বলী খেলা ও মেলা এ অঞ্চলের মানুষের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। বাঙালি লোকজ বলী খেলা ও মেলা এই জনপদের অধিবাসীদের প্রাণের উৎসবে পরিণত হয়।

১৯৮৪ সালে ১লা মার্চ কক্সবাজার মহকুমা জেলায় উন্নীত হয়। তখন থেকে এসডিও সাহেবের বলী খেলার নতুন নামকরণ করা হয় ডিসি সাহেবের বলী খেলা ও মেলা। তাই ইতিহাস-ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় প্রতিবারের মতো এবারও আগামী ৮, ৯ ও ১০ এপ্রিল থেকে ঐতিহ্যবাহী বলী খেলা ও মেলা শুরু হতে যাচ্ছে।

ডিসি সাহেবের বলী খেলা ও মেলা-২০২১ বাস্তবায়ন কমিটির সদস্য সচিব ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য মো. আলী রেজা তসলিম বলেন, বলী খেলার পাশাপাশি ৮-১০ এপ্রিল পর্যন্ত স্টেডিয়ামের আশপাশে মেলা বসবে। মেলায় থাকবে ঐতিহ্যবাহী নাগরদোলা, হস্তশিল্প, কুটিরশিল্প, তাঁতশিল্প, বস্ত্র শিল্প, মৃৎ শিল্পসহ দেশীয় বিপুল পণ্য।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি অনুপ বড়ুয়া অপু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশীদ, নির্বাহী সদস্য রাশেদ হোসাইন নান্নু, প্রভাষক জসিম উদ্দিন, এম.আর মাহবুব, আয়েশা সিরাজ ও আশরাফুল আজিজ সুজন।