ঢাকা, বুধবার, ২৫ মে ২০২২

উখিয়ার ১৩০ অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ও ভিক্ষুককে স্বাস্থ্যসেবার সাথে খাদ্য সহায়তা

প্রকাশ: ২০২২-০৪-২০ ১৯:১৯:২৫ || আপডেট: ২০২২-০৪-২০ ১৯:১৯:২৫

 

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের উখিয়ায় সমাজসেবা অধিদপ্তরের তালিকাভুক্ত ১৩০ অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ও ভিক্ষাবৃত্তিতে জড়িত অসহায় ভিক্ষুকদের খাদ্য সহায়তা এবং বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করেছে প্রান্তিক উন্নয়ন সোসাইটি।

বুধবার (২০ এপ্রিল) দিনব্যাপী পবিত্র রমজান উপলক্ষ্যে আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ওব্যাট হেলপার’স এর সহযোগিতায় প্রান্তিকের উখিয়াস্থ প্রকল্প কার্যালয়ে আয়োজিত এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমরান হোসাইন সজীব।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ” সমাজের সত্যিকারের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর অংশ অস্বচ্ছল ও অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে উন্নয়ন সংস্থা হিসেবে প্রান্তিক তার নামের যথার্থতা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছে। আশা করছি মানবিক প্রয়োজনে তাদের পথচলা অব্যাহত থাকবে।”

বিশেষ অতিথি উখিয়া উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আল মাহমুদ হোসেন বলেন, “বিশেষ এই কার্যক্রমে সেবা পেয়েছে উখিয়ার ৫ ইউনিয়নের তালিকাভুক্ত অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ও ভিক্ষুক। সমাজসেবা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে প্রান্তিককে ধন্যবাদ।”

এসময়, প্রান্তিকের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের একটি দল আগত উপকারভোগীদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করেন, এছাড়াও প্রদান করা হয় প্রয়োজনীয় ঔষধ।

স্বাস্থ্য সেবার পাশাপাশিপ সুবিধাবঞ্চিত এসব মানুষের মাঝে বিতরণ করা হয় ছোলা, ডাল, মুড়ি, চিনি, সেমাই সহ রমজানে প্রয়োজনীয় ১২ টি খাদ্য সামগ্রী।

একইসাথে খাদ্য ও স্বাস্থ্যসেবা পেয়ে খুশি উপজেলার রত্নাপালং ইউনিয়নের বাসিন্দা আজু নাহার (৬৭) নামে এক বৃদ্ধা বলেন, ” আমরা খুব অসহায় আমাদের খবর কেউ রাখেনা, আল্লাহর কাছে দোয়া করি যারা আজকে আমাদের সহায়তা করলো তাদের জন্য।”

অনুষ্ঠানে প্রান্তিক উন্নয়ন সোসাইটির প্রোগ্রাম ম্যানেজার অরিজিৎ কুমার রায়, প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর অনিমেষ বিশ্বাস অটল, চিফ একাউন্টেন্ট শিব শংকর ভৌমিক মেডিকেল কো-অর্ডিনেটর ডাঃ জুনায়েদ সিদ্দিক, মনিটরিং ও ইভ্যালুয়েশন অফিসার ফাতেমা আক্তার সহ প্রান্তিক ও স্থানীয় প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা ও তাদের আশ্রয়দাতা স্থানীয় জনগোষ্ঠীর ১৬০০ পরিবার কে এবছরের রমজানে খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে প্রান্তিক। একই সাথে সংস্থাটির বিশেষ স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রমের আওতায় ২০২২ এ এখন পর্যন্ত বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা স্থানীয় জনগোষ্ঠীর প্রায় এক হাজারেরও অধিক মানুষ।