ঢাকা, বুধবার, ২৫ মে ২০২২

ইতিহাস বিকৃত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ: ২০২২-০৩-১৪ ০০:৫০:৩৯ || আপডেট: ২০২২-০৩-১৪ ০০:৫০:৩৯

 

 

সোয়েব সাঈদ, রামু:
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজকে বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নপূরণের পথে অদম্যগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যদি বাঙালিকে স্বাধীনতার মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত করে শ্লোগান না শিখাতেন। আজকে এই বাংলাদেশ আমরা পেতাম না। ‘বীর বাঙালি অস্ত্র ধরো, বাংলাদেশ স্বাধীন করো’। ‘তোমার আমার ঠিকানা, পদ্মা মেঘনা যমুনা’। ‘তুমি কে আমি কে, বাঙালি বাঙালি’। এই শ্লোগানে উজ্জ্বীবিত করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বাঙালিকে স্বাধীনতার স্বপ্ন দেখিয়ে ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বেই হাজার বছরের ঘুমন্ত বাঙালি বাংলাদেশের স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছিলেন।

শনিবার (১২ মার্চ) রাত সাড়ে ১১টায় রামু স্টেডিয়ামের বঙ্গবন্ধু উৎসবের দ্বিতীয় দিনের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী একথা বলেন। আলোচনা সভায় শুভেচ্ছা বক্তৃতা করেন, বঙ্গবন্ধু উৎসব পরিষদের প্রধান পৃষ্ঠপোষক তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ¦ সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসকে বিকৃত করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে বিএনপি। ইতিহাসের খল নায়ককে নায়ক বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। জিয়াউর রহমান নাকি স্বাধীনতার ঘোষনা দিয়ে ছিলেন। স্বাধীনতার ইতিহাস নিয়ে মানুষের সাথে মশকরা করছে বিএনপি। মীর্জা ফখরুল সাহেবরা মশকরা করতে করতে জনগণের সাথে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে কৌতুক করছেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলা বিজয়ের ৫০ বছর ও জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে রামুতে বঙ্গবন্ধু উৎসবের দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জাফর আলম চৌধুরী। বঙ্গবন্ধু উৎসব পরিষদ ২০২২ চেয়ারম্যান পলক বড়ুয়া আপ্পুর স্বাগত বক্তব্যে ও মহাসচিব মো. সালাহ উদ্দিনের শুভেচ্ছা বক্তৃতায় আলোচনা সভায় শুরু হয়।

বঙ্গবন্ধু উৎসবের দ্বিতীয় দিনের বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন, চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য জাফর আলম, কানাডা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সরওয়ার হোসেন, কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মুসরাত জাহান মুন্নী, কক্সবাজার সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আবু তালেব, কক্সবাজার সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কায়ছারুল হক জুয়েল, কক্সবাজার প্রেসক্লাব সভাপতি আবু তাহের চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক দৈনিক কক্সবাজার সম্পাদক মোহাম্মদ মুজিবুল ইসলাম, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহেদ সরওয়ার সোহেল, কক্সবাজার জেলা কৃষকলীগ সাধারণ সম্পাদক আতিক উদ্দিন, জেলা শ্রমিক লীগ সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ আনচারী, শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদ কক্সবাজার জেলা সভাপতি মোরশেদ হোছাইন তানিম, খুরুশকুল ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান ছিদ্দিকী, খুনিয়াপালং ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল মাবুদ প্রমুখ।

বঙ্গবন্ধু উৎসব পরিষদের কো-চেয়ারম্যান তপন মল্লিক ও যুগ্ম-মহাসচিব আপন বড়ুয়ার সঞ্চালনায় দ্বিতীয় দিনের সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রামুতে বঙ্গবন্ধু উৎসবের দ্বিতীয় দিনের রাতের অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অংশ নেয়, রামু হিমছড়ি খেলাঘর আসর, রামু ল্যাবরেটরি স্কুল, কক্সবাজার জাগো বাংলাদেশ শিল্পী গোষ্ঠী ও স্থানীয় শিল্পীরা।