ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২

এক বছর পর ‘নিখোঁজ’ রোহিঙ্গা নেতার লাশ উদ্ধার, আটক-৩

প্রকাশ: ২০২১-১২-১৯ ০৫:৩৮:৫৯ || আপডেট: ২০২১-১২-১৯ ০৫:৩৯:৪৫

নিজস্ব প্রতিবেদক:
কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এক বছর পূর্বে ‘নিখোঁজ’ রোহিঙ্গা নেতার লাশ মাটিতে পুঁতে রাখা অবস্থায় শনাক্ত পূর্বক উত্তোলন করেছে এপিবিএন। এ ঘটনায় জড়িত ৩ জনকে আটক করা হয়েছে।

৮-আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সিহাব কায়সার খান জানান, শনিবার দুপুর ২টার দিকে ক্যাম্প-১৪ হাকিমপাড়া ই/৩ ব্লকে ইয়াকুব মাঝির ঘর থেকে একটি লাশ উত্তোলন করা হয়। পরে অপহৃত মৃত সৈয়দ আমীনের লাশ তার স্ত্রী হাসান বশর লাশের পরনে থাকা কাপড়, বেল্ট ও মাথার চুল দেখে “তার স্বামীর লাশ বলে” শনাক্ত করে।

এপিবিএন এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রবিউল ইসলাম পিপিএম-সেবা এর নেতৃত্বে মাঝি ও ভলান্টিয়ারদের সমন্বয়ে ব্লক রেইড পরিচালনা করে ৩ জন দুষ্কৃতিকারীকে আটক করা হয়। ওই ব্লক থেকে তারা নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয় জানায় সূত্র।

নিহত সৈয়দ আমীন (৪০) টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ২১ নম্বর চাকমারকূল ক্যাম্পের সি-৪ ব্লকের মুছা আলীর ছেলে। সে চাকমারকূল ২১ নম্বর ক্যাম্পের সি-৪ ব্লকের সাব-মাঝি ছিলেন।

এ বছরের জানুয়ারিতে তিনি নিখোঁজ হন। পরে পুলিশ অনুসন্ধান চালিয়ে তিনজনকে আটক করে।

আটকরা হলো উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের ১৪ নম্বর ক্যাম্পের ই-৩ ব্লকের বাসিন্দা মো. সালামের ছেলে মোহাম্মদ ইসলাম (২২), একই ব্লকের মো. কাশেমের ছেলে আব্দুল মোনাফ (২৬) ও মোহাম্মদ সালামের ছেলে মো. ইলিয়াছ (২৮)।

আটক তিনজনের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে লাশ উদ্ধার করা হয়। সৈয়দ আমীন নিখোঁজ হওয়ার পর অপহরণকারীরা ৮০ হাজার টাকক মুক্তিপণ দাবি করেছিল বলে পুলিশ জানায়।