ঢাকা, সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১

টক অফ দ্য উখিয়া-হলদিয়াপালং ৫নং ওয়ার্ডের স্থগিত কেন্দ্রের নির্বাচন!

প্রকাশ: ২০২১-১১-২৩ ২৩:৪০:২৬ || আপডেট: ২০২১-১১-২৩ ২৩:৪০:২৬

ইমরান আল মাহমুদ:
কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ভোট স্থগিত হয়ে আগামী ৩০ নভেম্বর পুনরায় ভোটগ্রহণের তারিখ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। ফলে উখিয়া উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নের মধ্যে একটিমাত্র কেন্দ্রে পুনরায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। যা বর্তমানে “টক অফ দ্য উখিয়া” নামে আলোচনার মধ্যে রয়েছে।

উখিয়া উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের বাইরেও প্রত্যেক এলাকার মানুষের মুখে মুখে আগামী ৩০ নভেম্বর পুনরায় ভোটগ্রহণের আলোচনা সমালোচনা।

জানা যায়, গত ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে উখিয়া উপজেলার পাঁচ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনের দিন হলদিয়া পালং ৫নং ওয়ার্ডের নলবনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সহিংসতার মধ্য দিয়ে ব্যালট বাক্স ছিনতাইয়ের মতো ঘটনায় ভোটগ্রহণ স্থগিত ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকে উখিয়া উপজেলার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয় এ কেন্দ্রটি। তবে স্থগিত হওয়া ভোটকেন্দ্রে পুনরায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া নিয়ে জনসাধারণের মাঝে আলোচনা সমালোচনা থাকলেও অবশেষে ৩০ নভেম্বর ভোটগ্রহণের তারিখ ঘোষণা করা হয়।

৫নং ওয়ার্ডের সাধারণ ভোটাররা জানান,ভোটের দিন ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার করতে হবে। পূর্বের মতো সহিংসতার ঘটনা পুনরাবৃত্তি যাতে না ঘটে সেদিকে প্রশাসনের কঠোর নজরদারি রাখতে হবে। নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হলে নিশ্চিন্তে ভোটাররা ভোট দিতে যাবে বলে জানান তারা।

স্থগিত কেন্দ্রের পুনরায় নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী,৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী ও ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য পদপ্রার্থীদের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী ও বর্তমান ইউপি সদস্য সরওয়ার কামাল বাদশা জানান,নলবনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে গত ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ভোটে সহিংসতার সৃষ্টি হয়। ফলে ভোটগ্রহণ স্থগিত হয়ে আগামী ৩০ নভেম্বর পুনরায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সাধারণ ভোটারদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেওয়ার জন্য প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো. শাহ আলমের প্রাপ্ত ভোটের চেয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ঘোড়া প্রতীকের ইমরুল কায়েস চৌধুরী ৪৭০ ভোটে এগিয়ে রয়েছে। স্থগিত কেন্দ্রের পুনঃনির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের ইমরুল কায়েস চৌধুরী ও নৌকা প্রতীকের অধ্যক্ষ মো. শাহ আলমের মধ্যে যে-ই ভোটে বিজয়ী হবে সে হলদিয়া পালং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত হবেন।