ঢাকা, শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১

রাজাপালংয়ে নৌকার প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সমর্থনে শোকরানা ও পথ সভা 

প্রকাশ: ২০২১-১০-১৪ ২৩:৪৪:০৫ || আপডেট: ২০২১-১০-১৪ ২৩:৪৪:০৫

 

শহিদুল ইসলাম:
কক্সবাজারের উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের নৌকার মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীর সমর্থনে এক শোকরানা ও পথ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকালে উখিয়ার একরাম মার্কেট চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে শোকরানা ও পথ সভায় উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের নয়টি ওয়ার্ড থেকে দলীয় নেতা কর্মীরা মিছিল সহকারে যোগদান করেন।

পরে সন্ধ্যায় মনোনয়ন চূড়ান্ত হওয়ার পর ঢাকা থেকে ফিরে আসা জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরীকে মিছিল স্লোগানে স্বাগত জানায় উপস্থিত জনতা। উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন তিনি পুনরায় নৌকা প্রতীক পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ও নির্বাচিত হতে রাজাপালংবাসীর সহযোগিতা চান।

তিনি অন্য প্রার্থীর উদ্দ্যেশে বলেন হুমকি দিয়ে লাভ নেই। সাধারণ ভোটারদের মন জয় করে নির্বাচনী মাঠে আসুন। এলাকায় উন্নয়নের স্বার্থে আরেক বার নৌকা প্রতীকে ভোট চান। দীর্ঘ ১০ বছর রাজাপালং ইউনিয়নে দায়িত্ব পালন করেছি।

এ সময় বক্তব্য দেন উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফরিদুল আলম, আওয়ামী লীগ নেতা রিয়াজুল হক, আলী আহমদ মেম্বার, সাবেক ইউপি সদস্য রুহুল আমিন, আওয়ামী লীগ নেতা আলী হোসেন খান, উখিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মুজিবুল হক আজাদ, রাজাপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি সদস্য সালাউদ্দিন , রাজাপালং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল আলম, যুবলীগ নেতা আবুল হোসেন, উখিয়া উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ও ইউপি সদস্য সরওয়ার কামাল পাশা , উপজেলা যুবলীগের মুক্তিযোদ্ধা সম্পাদক মাসুদ আমিন, রাজাপালং ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল উদ্দিন সুজন ইউপি সদস্য ইকবাল বাহার, ইউপি সদস্য হেলাল উদ্দিন, ইউপি সদস্য আবদুল হক, ইউপি সদস্য আবদুর রহিম, উখিয়া উপজেলা তাঁতী লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন, হুমায়ূন কবির, মফিদুুল আলম, আবদুল খালেক, মোস্তাক আহমদ চৌধুরী।

ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী কে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। পুরো অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উখিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ ইব্রাহিম। মুনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা জামাল উদ্দিন।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনেও নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে জয়ী হয়েছিলেন তিনি। এবারের নির্বাচনে এই ইউপির ৩৯১১১ জন ভোটার তাদের জনপ্রতিনিধি নির্বাচন করবেন।