ঢাকা, সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১

উখিয়ায় ৫ ইউপি’র নৌকার প্রার্থী চুড়ান্ত, বঞ্চিতদের বিক্ষোভ

প্রকাশ: ২০২১-১০-১৪ ০২:৩৩:৩৪ || আপডেট: ২০২১-১০-১৪ ০২:৩৭:৩২

 

নিজস্ব প্রতিবেদক:
সারাদেশের ন্যায় দ্বিতীয় ধাপে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন ১১ নভেম্বর। এই নির্বাচনে ৫ ইউপির নৌকা প্রতীকের প্রার্থী চুড়ান্ত করে নাম ঘোষণা করেছে সরকার দল আওয়ামী লীগ। এ নিয়ে মনোনয়ন বঞ্চিতদের বিক্ষোভ ও কলাগাছ হাতে রাজপথে নেমেছে বিক্ষুদ্ধ সমর্থকরা।

আ’লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রাপ্তরা হলো- ১নং জালিয়াপালং ইউনিয়ন- এসএম ছৈয়দ আলম, ২নং রত্নপালং ইউনিয়ন- নুরুল হুদা, ৩নং হলদিয়াপালং ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান শাহ আলম, ৪নং রাজাপালং ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, ৫নং পালংখালী ইউনিয়নে আবুল মঞ্জুর।

জানা গেছে আসন্ন এই নির্বাচনকে ঘিরে পাঁচ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রার্থীতা করার জন্য দুই ডজনের বেশি মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিল।

এদিকে গত মঙ্গলবার রাতে দলটির মনোনয়ন বোর্ড
উখিয়ার ৫ ইউপি প্রার্থী তালিকা চুড়ান্ত প্রকাশ করলে অনেকের মাঝে অন্তোষ বিরাজ করতে দেখা গেছে।

তাদের মধ্যে হলদিয়াপালং ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান পদপ্রত্যাশী ইমরুল কায়েস চৌধুরী, পালংখালী ইউনিয়নে শাহাদাত হোসেন জুয়েল ও আলী আহমদ।

উখিয়ায় ৫ ইউপি'র নৌকার প্রার্থী চুড়ান্ত, বঞ্চিতদের বিক্ষোভ
কলাগাছ হাতে বিক্ষুদ্ধ সমর্থকদের মাঝে মনোনয়ন প্রত্যাশী ইমরুল

তাদের দাবী, তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মতামতের তোয়াক্কাই যদি না হয় তাহলে তাদের মতামতের কি প্রয়োজন ছিল। জনবিচ্ছিন্ন ব্যক্তিদের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ মনোনয়ন দিলেও সাধারণ জনগণ ও দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকরা তা প্রত্যাখান করেছে।

বুধবার দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে স্ব স্ব এলাকায় ফিরে পথসভায় তারা এসব কথা বলেন।

এ সময় হলদিয়াপালং ইউনিয়নের বিভিন্নস্থানে ইমরুল কায়েস চৌধুরীর সমর্থনে আওয়ামীলীগের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে কলাগাছ রোপন করতেও দেখা গেছে। শত শত কলাগাছ হাতে বিক্ষুব্ধ জনতা রাজপথে নেমে আসে।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১৭ অক্টোবর। মনোনয়নপত্র বাছাই ২০ অক্টোবর। বাছাইয়ের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল ২১ থেকে ২৩ অক্টোবর। আপিল নিষ্পত্তি ২৪ ও ২৫ অক্টোবর। প্রার্থিতা প্রত্যাহার ২৬ অক্টোবর। প্রতীক বরাদ্দ ২৭ অক্টোবর। ১১ নভেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।