ঢাকা, বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামী আটক

প্রকাশ: ২০২১-০৯-০২ ১৫:৪৮:২৮ || আপডেট: ২০২১-০৯-০২ ১৫:৪৮:২৮

আটোয়ারী প্রতিনিধি:
আটোয়ারীতে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বুধবার (১ সেপ্টম্বর) যৌতুক লোভী স্বামী মোঃ শাহীন আলম কে আটক করেছে পুলিশ।

মামলা সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার রাধানগর লক্ষীদাসী গুচ্ছগ্রামের বাসিন্দা জনৈক মো: বাবুলের পুত্র শাহীন আলমের(২৫) সাথে ইসলামিক শরিয়ত মোতাবেক আলোয়াখোয়া ইউনিয়নের মোলানী গ্রামের মো: ইয়াছিন আলীর কন্যা মোছা: বানেসা’র(২২) বিয়ে হয় ২০১৬ সালে। সে সময় বিয়েতে যৌতুক দেওয়ার কথা ছিল এক লক্ষ আটাশ হাজার টাকা। অসহায় বানেসার পিতা বিয়ের সময় কোন রকমে এক লক্ষ টাকা জোগাড় করে জামাই শাহীনের হাতে তুলে দিয়েছিল এবং তার মেয়ে-জামাই যথারীতি সংসার জীবন শুরু করে। সংসার জীবনে তাদের ঘরে দুই বছর বয়সী একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকে শাহীন যৌতুকের বাকী টাকার জন্য মাঝে মধ্যে কারনে অকারনে তার স্ত্রীর ওপর শারীরিক নির্যাতন চালাতো।

সর্বশেষ গত ২৫ আগষ্ট দুপুরে তুচ্ছ ঘটনায় বানেসা’র ওপর আবারো শারীরিক নির্যাতন চালালে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পাষন্ড শাহীন সে সময় স্ত্রীর গুরুতর অসুস্থতা সত্তে¡ও তাকে সু চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে বিনা চিকিৎসায় বাড়িতে রেখে দেন।

এ অবস্থায় বানেসার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ১ সেপ্টেম্বর সকাল ৮টায় আটোয়ারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করান তার স্বামী। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির দু ঘন্টা পর বানেসা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।
এ ঘটনায় ওই দিন সন্ধায় বানেসার পিতা বাদী হয়ে জামাই শাহীন সহ তিন জনের নামে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন(সং/০৩) এর ১১(ক)/৩০ ধারায় আটোয়ারী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-০১, তারিখ ১ সেপ্টেম্বর/২০২১।

এ ব্যাপারে আটোয়ারী থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইজার উদ্দীন বলেন, ভিকটিমের লাশ ময়না তদন্তের জন্য পঞ্চগড় মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলা দায়েরের পর পরই আমরা মূল আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই এবং বাকী আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। মেয়েকে হারানো বানেসা’র বাবা মো: ইয়াছিন আলী জানান, তিনি তার পাষন্ড জামাই শাহীন সহ অন্যান্য দোষীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি চান। ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।