ঢাকা, শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১

রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী কর্তৃক অপহরণের শিকার স্থানীয় যুবক, পরে উদ্ধার, আটক-১

প্রকাশ: ২০২১-০৮-২৯ ১৭:১০:০২ || আপডেট: ২০২১-০৮-২৯ ১৭:১০:০২

 

শহীদুল ইসলাম::
রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের হামলায় স্থানীয় এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়েছে। হামলার শিকার আবদুল খালেক (২৭) উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী ঘোনারপাড়া এলাকার মৃত নাজির হোসেনের ছেলে। অপহরণের ঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে এক রোহিঙ্গাকে আটক করেছে এপিবিএন সদস্যরা।

রোববার (২৯ আগস্ট) রাত ২টার দিকে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী ঘোনারপাড়া নিজ বাড়ী থেকে থেকে সশস্ত্র রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা আবদুল খালেককে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

পালংখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম. গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, রোহিঙ্গাদের অপরাধ প্রবণতা দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। গতরাতে স্থানীয় এক যুবককে অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে মারাত্মক ভাবে নির্যাতন করেছে। পরে এপিবিএন পুলিশের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করা হয়। রোহিঙ্গাদের বর্বর আচরণে স্থানীয় জনগোষ্টির মাঝে দিনদিন শঙ্কা কাজ করছে।

এ ঘটনার খবর পেয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিয়োজিত আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) সদস্যরা খবর পেয়ে অপহৃতকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করে। ওই রাতে আড়াইটার দিকে ১৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কবরস্থানের পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালের প্রেরণ করা হয়।

থাইংখালী তাজনিমারখোলার এপিবিএন পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ মো: মাহবুবের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে অপহরণকারীচক্রের সদস্য রোহিঙ্গা ১২নং ক্যাম্পের ব্লক-সি-৭ এর বাসিন্দা মো: ইউসুফের ছেলে রফিক উল্লাহ (২৫) কে আটক করা হয়। ধৃত আসামীর বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনী পদক্ষেপ গ্রহণে জন্য উখিয়া থানায় হস্তান্তর করায় হয় বলে এপিবিএন সূত্রে জানা যায়।