ঢাকা, শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

যোগ্য ব্যক্তিদের বয়স্ক ও বিধবা ভাতা নিশ্চিতে হলদিয়াপালংয়ে চলছে কার্যক্রম!

প্রকাশ: ২০২১-০৮-২০ ১০:৩৯:৩২ || আপডেট: ২০২১-০৮-২০ ১০:৩৯:৩২

ইমরান আল মাহমুদ,উখিয়া:
বয়স্ক ও বিধবাদের শতভাগ সরকারি সহায়তা পৌঁছে দিতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এবার যুগের সাথে তাল মিলিয়ে প্রযুক্তির সাহায্যে সবার ভাতা পৌঁছে যাবে মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টের মাধ্যমে। সারাদেশের ন্যায় উখিয়াতে চলছে অনলাইনে ভাতার আবেদন গ্রহণ প্রক্রিয়া।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার হলদিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদে বয়স্ক ও বিধবা ভাতা পাওয়ার যোগ্য জনসাধারণের ভিড়। প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের মাঝে সরকারের উদ্যোগ বাস্তবায়নে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মো. শাহ আলম।
ইউপি চেয়ারম্যান জানান,প্রযুক্তি থেকে পিছিয়ে পড়া বয়স্ক ও বিধবা ভাতা পাওয়ার যোগ্য জনসাধারণের মাঝে সহজে অনলাইনে ভাতা পৌঁছে দেওয়ার যে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার সেটি বাস্তবায়নে মৃত্যু সনদ সহ সকল প্রত্যয়ন ফি ফ্রি করে দেওয়া হয়েছে।
ভাতা আবেদন সম্পন্নের পর আবেদনকারী আবেদনের কপি, দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ও স্বামীর মৃত্যুসনদ ( বিধবা ভাতার ক্ষেত্রে) উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে জমা দেওয়ার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।
যোগ্য প্রার্থীদের ভাতা নিশ্চিতে সতর্কতার সাথে কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নিজাম উদ্দিন আহমেদ জানান, সরকার উখিয়া উপজেলার সকল বয়স্ক ও বিধবা ব্যাক্তিদের ভাতার আওতায় নিয়ে আসবে। এজন্য ভাতার যোগ্য বয়স্ক ও বিধবা ব্যক্তিদের অনলাইনে ভাতার আবেদন গ্রহণ করা হচ্ছে যা আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত চলমান থাকবে।
নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভাতার আবেদন সম্পন্নের জন্য সকলের প্রতি আহবান জানানো হচ্ছে।

ইউএনও আরও জানান,আবেদনের সময় একটি মোবাইল নাম্বার একজন ভাতাভোগীর জন্যই ব্যবহার করতে হবে একের অধিক ব্যবহার করা যাবে না। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মনে চলার অনুরোধ জানান তিনি।