ঢাকা, সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১

মার্কিন পুলিশের পদত্যাগের হিড়িক

প্রকাশ: ২০২১-০৬-২৭ ১২:৩৬:২২ || আপডেট: ২০২১-০৬-২৭ ১২:৩৬:২২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। গত বছর শ্বেতাঙ্গ পুলিশের নির্যাতনে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর যুক্তরাষ্ট্র পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। বিক্ষোভে ফেটে পড়েছে দেশটির জনগণ। হত্যাকাণ্ডটির পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রের সাধারণ মানুষ থেকে সমাজকর্মী, সাংবাদিক থেকে মানবাধিকারকর্মী- সবার পুলিশের প্রতি বিরূপ মনোভাব ক্রমশ বাড়ছে। এমনকি বাজেটে সংস্থাটিকে দেয়া বরাদ্দ কমানোর দাবি পর্যন্ত উঠেছে।
দেশটির গণমাধ্যম জানায়, এমন জনরোষ থেকে বাঁচতে পুলিশ বাহিনী ছাড়ার হিড়িক পড়েছে। অনেকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ বা আগাম অবসরে যাচ্ছেন। পুলিশ বিদ্বেষের কারণে সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন ধরনের অপরাধ যেমন বাড়ছে, তেমনই সংস্থাটিতে নিয়োগের জন্য লোক মিলছে না।
সম্প্রতি মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত এক বছরে নর্থ ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাশভাইল শহরের ২৩৮ পুলিশ কর্মকর্তার মধ্যে ৮০ জনই চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন।
এ বিষয়ে স্থানীয় পুলিশ প্রধান ডেভিড জ্যাক বলেন, আমরা খারাপ হয়ে গেছি উল্লেখ করে সরাসরি আমাদের বিরুদ্ধেই বিক্ষোভ হচ্ছে। এ কারণে পুলিশ কর্মকর্তারা চাকরি ছেড়ে দিচ্ছেন। কিন্তু আমরা তো এমন অবস্থার জন্য এই বাহিনীতে যোগ দেইনি।

যুক্তরাষ্ট্র গত এক বছরে স্বেচ্ছায় অবসর নিয়েছেন কয়েক হাজার পুলিশ কর্মকর্তা। এ অবস্থায় মার্কিন পুলিশ বাহিনীর অনেক সদস্যই আগাম অবসর নিচ্ছেন বা ভিন্ন কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করছেন। সেখানে পুলিশ-বিদ্বেষ এতটাই তীব্র হয়ে উঠেছে যে, নিয়োগ দিতে নতুন লোকও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

১৯৪টি পুলিশি সংস্থার ওপর জরিপ চালিয়ে চলতি মাসে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের পুলিশ এক্সিকিউটিভ রিসার্চ ফোরাম। এতে দেখা গেছে, গত এপ্রিলে শেষ হওয়া বছরে দেশটিতে অবসর নেওয়ার হার আগের বছরের তুলনায় ৪৫ শতাংশ এবং পদত্যাগের হার ১৮ শতাংশ বেড়ে গেছে। সূত্র : নিউইয়র্ক টাইমস।