ঢাকা, সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১

সারাদেশে জরুরি সেবা ছাড়া সব বন্ধের প্রস্তুতি

প্রকাশ: ২০২১-০৬-২৫ ১৪:৫০:২৯ || আপডেট: ২০২১-০৬-২৫ ১৪:৫২:০৬

ডেস্ক রিপোর্ট: বাংলাদেশে এখন চলছে প্রাণঘাতী করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে মৃত্যু ও সংক্রমণ। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চলমান বিধিনিষেধ কার্যত না মানায় সারাদেশ ১৪ দিন শাটডাউন দেওয়ার সুপারিশ করেছে করোনা বিষয়ক জাতীয় কমিটি।

শাটডাউনের সুপারিশের বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, পরিস্থিতি এমন যে খুব দ্রুতই আমাদের এমন একটি সিদ্ধান্ত নিতে হতে পারে। সারাদেশে সংক্রমণ মোকাবিলায় সরকারের যথেষ্ঠ প্রস্তুতিও আছে।

ফরহাদ হোসেন আরও বলেন, ‘দেশে করোনা মহামারির শুরুতে আমরা যেমন লকডাউন দিয়েছিলাম তার মতোই কিংবা তার চেয়ে আরও কঠোর হতে পারে এবারের শাটডাউন।

শাটডাউনের প্রকৃতি সম্পর্কে কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়, জরুরি সেবা ছাড়া যানবাহন, অফিস-আদালতসহ সবকিছু বন্ধ রাখা প্রয়োজন। এ ব্যবস্থা কঠোরভাবে পালন করতে না পারলে আমাদের যত প্রস্তুতিই থাকুক না কেন স্বাস্থ্য ব্যবস্থা অপ্রতুল হযে় পড়বে।’

কমিটির সভাপতি ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা বলেন, ‘শাটডাউন মানে জরুরি সেবা ছাড়া সবকিছুই বন্ধ রাখার কথা বোঝানো হয়েছে। সব কিছু বন্ধ থাকবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাসার বাইরে বের হতে পারবে না। এটা না হলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। এখন আমরা সুপারিশ করেছি। পরবর্তী সিদ্ধান্ত সরকার নেবে।

কারিগরি পরামর্শক কমিটির সুপারিশের পর জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, আমরা খুবই গভীরভাবে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। এরই মাঝে আমরা ঢাকার চারপাশের ৭ জেলা এবং সীমান্তবর্তী এলাকাগুলোকে কঠোর বিধিনিষেধের আওতায় এনেছি। অবস্থা বিবেচনায় ঢাকাসহ সারাদেশে শাটডাউনের প্রস্তুতি সরকারের আছে।