ঢাকা, শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১

ক্রীড়া চর্চায় মাঠ পেলো বৃহত্তর টেকপাড়াবাসী

প্রকাশ: ২০২১-০৫-১৫ ২০:২৪:০৪ || আপডেট: ২০২১-০৫-১৫ ২০:২৯:৫৪

 

এম.এ আজিজ রাসেল:
পর্যটন নগরী কক্সবাজার শহরে হারিয়ে যাচ্ছে খেলাধুলার মাঠ। এতে দিন দিন বিপদগামী হচ্ছে তরুণ-যুবকেরা। মাঠ না পেয়ে কংক্রিটের চার দেয়ালে বন্দী কোমলমতি শিশুকিশোররা। এ অবস্থায় ক্রীড়া চর্চার জন্য মাঠ পেলো বৃহত্তর টেকপাড়াবাসী।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. হেলালুদ্দিন আহমদ, মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. শফিউল আজিম ও জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদের বদান্যতায় খুরুশকুল ব্রিজ সংলগ্ন মাঠটি খেলাধুলার জন্য স্থায়ীভাবে ঠিকানা পেলো টেকপাড়াবাসী।

এ উপলক্ষে শনিবার (১৫ মে) বিকালে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. শফিউল আজিম নেতৃত্বে টেকপাড়া সোসাইটি ও ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দিদারুল ইসলাম রুবেলের নেতৃত্বে হাঙরপাড়া জনকল্যাণ সংস্থা প্রীতি ফুটবল ম্যাচে মুখোমুখি হয়। ভাতৃত্বপূর্ণ এ খেলা ১-১ গোলে ড্র হয়।

খেলা শেষে মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. শফিউল আজিম বলেন, ‘দিন দিন দখলবাজ ও ব্যবসায়ীদের দখলে চলে যাচ্ছে খেলার মাঠ। এতে সংকুচিত হয়ে যাচ্ছে খেলাধুলার পরিধি। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্রীড়া উন্নয়নে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে তিনি যুব সমাজকে ক্রীড়া বান্ধব করতে নানান উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তাই ক্রীড়া উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর গৃহীত পদক্ষেপ এগিয়ে নিতে পর্যটন শহরের পাড়ায়-মহল্লায় মাঠ তৈরির পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। যার অংশ হিসেবে বৃহত্তর টেকপাড়াবাসীর জন্য এই মাঠ স্থায়ীভাবে খেলাধুলার জন্য উন্মুক্ত করার প্রক্রিয়া চলছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘একসময় টেকপাড়ার বিভিন্ন মাঠ থেকে উঠে এসেছে অনেক মেধাবী খেলোয়াড়। যারা জেলা ও জাতীয় পর্যায়ে খেলে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রেখেছেন। বিদেশের মাটিতেও টেকপাড়ার সন্তানেরা খেলে দেশের সুনাম সমৃদ্ধ করেছেন। তাই সেই ঐতিহ্য ফিরে আনতে টেকপাড়ায় একটি ‘শার্কবেল’ নামে ফুটবল ক্লাব গঠন করা হবে। এটা দিয়ে শুরু করে পর্যায়ক্রমে ক্রিকেটসহ অন্যান্য ইভেন্টের অনুশীলন অব্যাহত থাকবে। এরই মাধ্যমে তৈরি হবে সামাজিক নেতৃত্ব। পাশাপাশি মাদক থেকে দুরে থাকবে আমাদের সন্তানেরা। তিনি এই মহৎ কাজে সমাজের রাজনীতিক, ব্যবসায়ীসহ সব মহলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। ‘

টেকপাড়া সোসাইটির সভাপতি এম. জাহেদ উল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক শেখ আশিকুজ্জামান বলেন, মাঠের অভাবে এলাকার তরুণ-যুবকেরা ক্রীড়াবিমূখ হচ্ছে। এতে অনেকেই অন্ধকার পথে চলে যাচ্ছে। এই অবস্থায় কক্সবাজারের গৌরব স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. হেলালুদ্দিন আহমদ, মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. শফিউল আজিম ও জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদের আন্তরিকতায় নদী সংলগ্ন খুরুশকুল ব্রিজের পাশে বালুর মাঠটি লিজ বাতিল করে খেলাধুলার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হচ্ছে। এই মাঠটি পেলে এলাকার তরুণ প্রজন্ম খেলাধুলায় মনোনিবেশ করবে। সমাজ থেকে দুর হবে মাদক। সেই সাথে খেলাধুলায় ফিরে আসবে টেকপাড়ার হারানো সোনালী অধ্যায়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন টেকপাড়া সোসাইটির উপদেষ্টা এহসানুল হক রিয়াজু, আবুল হাসান, হাবিবুর রহমান, মাসুদুর রহমান, কাউন্সিলর দিদারুল ইসলাম রুবেল, কক্সবাজার ক্রীড়া লেখক সমিতির সভাপতি মাহবুবুর রহমান, সাংবাদিক সংসদ কক্সবাজারের সভাপতি এম.এ আজিজ রাসেল, টেকপাড়া সোসাইটির সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সাল উল আলম, যু্গ্ন সম্পাদক জাবেদ উল্লাহ মিয়া, মোঃ ইউনুস, এমরানুল ইসলাম, এহসান, সাইফুল, রিসাদ, সাগর, ইয়াসির, সরওয়ার, হাঙরপাড়া জনকল্যাণ সংস্থার শেখ ফরহাদ, সভাপতি সাইদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক জমির উদ্দিন, সাইফুল ইসলাম, আরাফাত, আরব প্রমূখ।