ঢাকা, সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১

পুত্রবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে শশুর আটক

প্রকাশ: ২০২১-০৪-১১ ১৭:৪৫:৪৭ || আপডেট: ২০২১-০৪-১১ ১৭:৪৫:৪৭

 

মান্দা (নওগাঁ) সংবাদদাতা:

নওগাঁর মান্দায় পুত্রবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আব্দুর রহমান (৫০) নামে এক ব্যক্তিকে রোববার সকালে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা। গত শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার ভারশোঁ ইউনিয়নের মহানগর নিচপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আটক আব্দুর রহমান ওই গ্রামের মৃত রিয়াজ উদ্দিন কবিরাজের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, ভুক্তভোগী গৃহবধূর শশুর আব্দুর রহমান একজন মাদকাসক্ত। মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় স্ত্রী জামিলা বিবি মাঝে মধ্যেই নির্যাতনের শিকার হতেন। একই কারণে প্রায় ৩ মাস আগে স্ত্রী জামিলা বিবিকে মারপিট করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। নিরুপায় জামিলা বিবি ছোট ছেলে বিদ্যুতকে নিয়ে বাবার বাড়ি গিয়ে একটি বয়লারে শ্রমিকের কাজ করেন। এরপর থেকে আব্দুর রহমান, তার বৃদ্ধ মা সুফিয়া বেগম, বড়ছেলে সাহেব আলী ও পুত্রবধূ একই বাড়িতে থাকতেন।

ভুক্তভোগী গৃহবধূ জানান, প্রায় ছয় মাস আগে আব্দুর রহমানের বড় ছেলে সাহেব আলী সঙ্গে তার বিয়ে হয়। স্বামী সাহেব আলী রাজমিস্ত্রীর কাজ করায় বেশির ভাগ সময়ই বাড়ির বাইরে থাকেন। গত শুক্রবার রাতে স্বামী বাড়িতে না থাকার সুযোগে রাত ১২ টার দিকে শশুর গোপনে তার ঘরে প্রবেশ করে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় তার চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এলে শশুর তার ঘরে গিয়ে শুয়ে পড়েন।

ভুক্তভোগী আরও জানান, ওই রাতেই মোবাইলফোনে বিষয়টি তিনি স্বামী সাহেব আলীকে অবহিত করেন। এমন সংবাদে স্বামী সাহেব আলী শনিবার বাড়ি আসলে তাকে নিয়ে ওইদিন সন্ধ্যায় শশুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণচেষ্টার বিষয়ে মান্দা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

ওই গৃহবধূ অভিযোগ করে বলেন, থানায় অভিযোগ দেয়ার বিষয়টি জানতে পেরে শশুর ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার রাতে তাদের দুজনকে ঘরে আটকিয়ে রাখা হয়। স্থানীয় লোকজন রোববার সকালে তাদের উদ্ধারসহ শশুর আব্দুর রহমানকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহিনুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চি করে বলেন, এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।