ঢাকা, শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১

কোচিং সেন্টার চালু রাখার দায়ে ১০ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশ: ২০২১-০৪-০৩ ১৬:৫৫:০৩ || আপডেট: ২০২১-০৪-০৩ ১৬:৫৫:০৩

হাবিবুর রহমান, নওগাঁ:
নওগাঁর মান্দায় করোনাভাইরাসের ঝুঁকি সত্ত্বেও বাড়িতে কোচিং সেন্টার চালু রাখার দায়ে সামসুল হক (৬০) নামে এক শিক্ষকের নিকট থেকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

দন্ডিত সামসুল হক উপজেলার পরানপুর ইউনিয়নের শিশইল গ্রামের মৃত শাহাব উদ্দিনের ছেলে।

শনিবার দুপুরে ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইউএনও আব্দুল হালিম এ অভিযান পরিচালনা করেন।

সূত্র জানায়, করোনা সংক্রমনের ঝুঁকি সত্ত্বেও সামসুল হক তার নিজ বাড়িতে কোচিং সেন্টার চালু রেখে শিশু শিক্ষার্থীদের পাঠদান দিয়ে আসছিলেন। এমন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার বেলা ১২টার দিকে ওই বাড়িতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে ওই বাড়ির তিনটি কক্ষে তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির অন্তত ৬০ জন শিক্ষার্থীর উপস্থিতি পাওয়া যায়। ঘটনার দায় স্বীকার করে ক্ষমা প্রার্থনা করায় জরিমানা করে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

অন্যদিকে একইদিন দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার ফেরিঘাট এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন ইউএনও আব্দুল হালিম। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা না মানার দায়ে যাত্রীদের জরিমানাসহ তাদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

এ সময় মান্দা থানার ওসি শাহিনুর রহমান, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রেজাউল করিম, উপজেলা রিসোর্স ইন্সট্রাক্টর কায়সার হাবীব, মান্দা থানার উপপরিদর্শক অর্জুন কুমার উপস্থিত ছিলেন।

এসব প্রসঙ্গে ইউএনও আব্দুল হালিম বলেন, সরকারি নিদের্শনা অমান্য করে বাড়িতে কোচিং সেন্টার চালু রাখার অভিযোগে একব্যক্তির ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। একই সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলার দায়ে জরিমানা আদায়সহ পথচারিদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়।