ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

দরদের জমিদারিতেই “মউ”র সাম্রাজ্য !

প্রকাশ: ২০২০-০৯-১৭ ১১:০৬:১০ || আপডেট: ২০২০-০৯-১৭ ১১:০৬:১০

আলমগীর মাহমুদ:
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মউর দোকানের মউ ইন্তেকাল করেছেন ।

এই মৃত্যু হঠাৎ আড়ষ্ট করে মোরে! মাথা থেকে পা পর্যন্ত ঝিম মেরে চোখে ক’ সেকেন্ড জ্যোনি ধায় ২ চেতনা ফিরতেই প্রশ্ন জাগে মনে চ, বি, তে মউর দোকানে খাওয়া বাকী বুইক্যা ৩ সব দিয়েছিতো!

মনেরে মনে করানোর জোর চেষ্টা ৯১৮৫-৮৬ থেকে ১৯৯৩ সময়ের সে দিনগুলোর কথা।

” চ, বি,তে পড়তে গিয়ে শাটল ট্রেন থেকে নেমে মউর দোকানে ঢুকতেই ক্যাশের সামনে ঢালায় সিঙ্গারা, পিয়াজু, সমুচা, আধোয়া হাতে মুখে একটা পুরতে পুরতেই গেছি হাত ধোঁতে ।

ক্যাশে বসা মউ চাটগাঁইয়া দরদে ”বয় বয় কঁত্যে হাত ধোয়র তোঁরার হাত আইজ অবিত্র অইয়েনে! তারপরও একবার পানি বাজাই ল” ৪

অনেকে আবার দোকানে ঢোকার আগেই উচ্ছাসময় ডাক মউ.. মউ..! ক্যাশ থেকে মউ “আয় আয় আগে নাস্তা গরি ল৫

খিচুড়ি, ডিম, চনা, সিঙ্গারা, ছমুছা এইসব উনি নিজেই করতেন ছোট একটা কি দুইটা মেসিয়ার। একসাথে অনেক পড়ুয়ার আগমনে তারা খেই হারাত । যারটা তে নিয়ে খেয়ে নিজের হিসেবে মউরে যাহ দিল ।

দশ টাকায় বিশ টাকার সিঙ্গারা পাওয়া যেত… মউর থিউরী পেটেরে কম দিবি না! কিছু কম থাকলে আমারে দিস । তারপরও পেটের ক্ষুধা নিয়ে ক্লাসে যাইস না। না থাকলে করবি কি! আরো কইত…

“তোরাতুন এড়ে মা বাপ আছেনে চিন্তা গইরত্য, আঁরে মা’র ভাই মউ ডাইকস দে ননে ? তোরাতুন লাভ গরি আঁই বিল্ডিং বান্ধিবার চিন্তা লই এড়ে দোকানদারী গরিবাল্যায় আস্যিদেনে? ৬

হিসাব তোরা রাইছ। যার বাইক্যা খাতা তে। কেউ দিলে নিত না দিলে চাইত না। খেয়ে নাই বললে “পরে দিবিদে এরি বলে হাসত”….

. চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আসা পড়ুয়া যারা আজ ছড়িয়ে আছে বিশ্বজুড়ে। সে সব দরদীয়ার দরদী সাম্রাজ্যেরই জমিদার ” মউ”

পাদটীকা :
১. মামা

২. বিষ্ময় সদৃশ ধোঁয়াশা

৩. পাওনা

৪. বস! বস। হাত ধোঁয়ার কি দরকার! তোদের হাত কি এখনো অবিত্র হয়েছে! তারপর ও পানি ছূঁয়ায়ে ল

৫. আয় আয় আগে নাস্তা খেয়েনে

৬. তোরার কি এখানে মা বাবা আছে চিন্তা করার? আমারে মা’ র ভাই মউ ডাকছস না! তোদের কাছে লাভ করে বিল্ডিং বানানোর চিন্তা নিয়ে কি আমি দোকানদারী করতে এসছি?

লেখকঃ বিভাগীয় প্রধান। সমাজবিজ্ঞান বিভাগ।
উখিয়া কলেজ । কক্সবাজার। [email protected] com