ঢাকা, বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২

লিখনির মাধ্যমেই সাংবাদিকরা সমাজের অসঙ্গতি দূর করতে পারে : প্রণয় চাকমা

প্রকাশ: ২০২০-০৯-১৫ ২২:১৯:৩২ || আপডেট: ২০২০-০৯-১৫ ২২:১৯:৩২

সোয়েব সাঈদ, রামু:

উগ্রবাদ ও সহিংসতাসহ যেকোন সামাজিক অসংগতির বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের রুখে দাঁড়াতে হবে। সাংবাদিকরা সমাজের দর্পণ। লিখনির মাধ্যমেই সাংবাদিকরা সমাজের অসঙ্গতি দূর করতে পারে।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টায় রামু উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে হেলপ কক্সবাজারের উদ্যোগে চট্টগ্রাম বিভাগের জনগনের সামাজিক সম্পৃক্ততার মাধ্যমে উগ্রবাদ ও সহিংসতা প্রতিরোধ (সিভিক) বিষয়ক প্রকল্পের ওরিয়েন্টেশন সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা এ কথা বলেন।

তিনি বলেন-রামু একটি ঐতিহাসিক জনপদ। এটি কক্সবাজারের প্রথম শহর। এখানকার ১১টি ইউনিয়নের বিশাল জনপদ বৈচিত্রে ভরপুর। এমন জনপদকে নিরাপদ ও সুন্দর রাখার দায়িত্ব সবাইকে নিতে হবে।

তিনি উগ্রবাদ ও সহিংসতা রোধে ধর্মীয় নেতৃবৃন্দ, শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি সহ সবাইকে সম্পৃক্ত করে রামু উপজেলায় কাজ করার জন্য হেলপ কক্সবাজারকে অনুরোধ জানান।

সভাপতির বক্তব্যে হেলপ কক্সবাজারের নির্বাহী পরিচালক আবুল কাশেম বলেন, রামুতে উগ্রবাদ ও সহিংসতা নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে বেসরকারি সংস্থা হেলপ কক্সবাজার। ইপসা সিভিক কনসোর্টিয়াম এর সহযোগিতায় এবং জিসিইআরএফ এর অর্থায়নে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হচ্ছে। এ উপলক্ষ্যে সাংবাদিকদের সাথে ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম আয়োজন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রকল্পের উদ্দেশ্য ও কর্মকান্ড উপস্থাপন করেন প্রজেক্ট ম্যানেজার সাদেকুল ইসলাম।

এতে বিশেষ অতিথি ও সাংবাদিকদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-রামু উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান, উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপ সহকারী প্রকৌশলী ক্যছাই মং চাক, সূর্য্যের হাসি ক্লিনিকের ম্যানেজার খন্দকার দেলোয়ার, রামু প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম সেলিম ও খালেদ শহীদ, সাংবাদিক সোয়েব সাঈদ প্রমূখ।

ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে রামুতে কর্মরত ২০ জন সংবাদকর্মী অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন প্রোগ্রামের ফিল্ড ফ্যাসিলিটেটর সাইফুল ইসলাম ও মরিয়ম বেগম।