ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ১৫ দিন আগে প্রধান শিক্ষকদের প্রস্তুতি নিতে হবে

প্রকাশ: ২০২০-০৯-০৯ ২১:৪৭:০১ || আপডেট: ২০২০-০৯-০৯ ২১:৪৭:৩৪

সিএসবি২৪ ডেস্ক:
কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্য ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিদ্যালয় পুনরায় চালুর নির্দেশিকা’ প্রকাশ করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

নির্দেশিকায় বিদ্যালয় খোলার ১৫ দিন আগে থেকে প্রধান শিক্ষকদের প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে । তবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন।

তিনি বলেছেন, ‘স্কুল খোলার আগে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় যেসব প্রস্তুতি নিতে হবে, সে বিষয়ে জানানো হয়েছে।’

আজ বুধবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের একথা জানান তিনি।

ওই নির্দেশিকায় শিক্ষক-কর্মচারী, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের জন্য বিস্তারিত নির্দেশনা তুলে ধরা হয় নির্দেশিকায়। নির্দেশিকা প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এবং দুয়েকটি অনলাইন গণমাধ্যমে স্কুল খোলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে তথ্য ছড়ানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সিনিয়র সচিব বলেন, ‘বিদ্যালয় খোলার পরিবেশ হলে প্রধান শিক্ষকদের গাইডলাইন অনুসরণ করে প্রস্তুতির নির্দেশ দেওয়া হবে।’

সচিব আরও বলেন, ‘যখন আমরা মনে করবো যে, কোভিড পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসছে, স্কুলগুলো খোলার মতো পরিবেশ সৃষ্টি হচ্ছে, তার আগেই আমাদের প্রধান শিক্ষক, কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেবো—গাইডলাইন অনুসরণ করে স্কুলগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে প্রস্তুতি নিতে।’’

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে সিনিয়র সচিব বলেন, ‘স্কুল খোলার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আমরা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বসে সিদ্ধান্ত নেবো। আমরা বলিনি যে, স্কুল খুলতে হবে; আজই তো প্রস্তুতি গ্রহণ করা যাবে না। প্রস্তুতি নিতে তো সময় লাগবে। গ্রামে যে স্কুলগুলো আছে, সেখানে আমরা মনে করছি এখনও পরিবেশ তৈরি হয়নি। ৩ অক্টোবর পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছি, এখনও অনেক সময়।’’

প্রত্যেকটি স্কুলের প্রধান শিক্ষক কোন গাইডলাইন ফলো করবেন তা আমরা জানিয়ে দিয়েছি। সেখানে আমরা বলেছি, স্কুলগুলো পরিষ্কার করতে হবে। থাকতে হবে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা। নিরাপত্তার জন্য নিশ্চিত করতে হবে মাস্ক। যেসব স্কুলে ছাত্র সংখ্যা বেশি, সেখানে শিফটিং করতে হবে। একদিন এক শ্রেণিকে আনলে পরের দিন আনতে হবে আরেক শ্রেণিকে।’’

‘এসব বিষয় বিবেচনায় নিয়ে স্কুল খোলার পরিকল্পনা করা হবে। এই পরিকল্পনা প্রত্যেকটি স্কুলের জন্য এবং এতে সহায়তা করবেন উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার। পরিকল্পনা অনুযায়ী স্কুলগুলো পরিচালিত হচ্ছে কিনা সেটি তারা তদারকি করবেন’, যোগ করেন তিনি।