ঢাকা, শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২

ভাসানচর আমাদের পছন্দ হয়েছে দেখে আসা রোহিঙ্গা প্রতিনিধি দল

প্রকাশ: ২০২০-০৯-০৮ ২২:৪৩:৪৪ || আপডেট: ২০২০-০৯-০৮ ২২:৪৯:৪৫

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
ভাসানচরের চারপাশের বাঁধ ঘুরে দেখে সার্বিক পরিবেশ ভালো লেগেছে । সেখানে রোহিঙ্গাদের জন্য সরকারের গড়ে তোলা অবকাঠামোগুলো মজবুত ও সুন্দর। গরু, ছাগল, মুরগীর খামার এগুলো আমাদের পছন্দ হয়েছে। আমরা বিষয়টি ক্যাম্পের রোহিঙ্গাদের জানাবো।

ভাসানচরের পরিবেশ দেখে তারা মঙ্গলবার বিকেলে উখিয়া ট্রানজিট ক্যাম্পে ফিরেছে ৪০ সদস্যের রোহিঙ্গা প্রতিনিধি দল এসব কথা বলেন। এর আগে গত শনিবার সেনাবাহিনীর মধ্যস্থতায় উখিয়া-টেকনাফ থেকে রোহিঙ্গা নেতাদের ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রতিনিধি দলে ছিল উখিয়ার বালুখালী ক্যাম্প-,৯ এর ব্লক আই-টু এর বাসিন্দা নূর আলম, বালুখালী ক্যাম্প-১০ এর ব্লক জি ২২’র নূর মোহাম্মদ, ক্যাম্প ১১ এর হেড মাঝি মোঃ ওসমান, ব্লকমাঝি দিল মোহাম্মদ ও গোল ফারাজ, ক্যাম্প ১২ ময়নার ঘোনা হেডমাঝি আব্দুর রহিম, ব্লক মাঝি নূর হোসাইন ও নূর জাহান, ক্যাম্প ১৯ বর্মপারা হেডমাঝি মুজি উল্লাহ, ব্লকমাঝি মোঃ হাবিবুর রহমান,নূর মোস্তফা ও মো: রফিক প্রমুখ।

শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মাহবুব আলম তালুকদার বলেন, প্রতিনিধিদলের সকলে উখিয়া-টেকনাফ বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হেড মাঝি, মাঝি ও মসজিদের ইমাম। তারা ভাসানচর আবাসন প্রকল্প পরিদর্শন করেছেন। সেখানে থাকা বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা সম্পর্কে জেনেছেন, এখন তা রোহিঙ্গাদের কাছে সেখানকার পরিবেশ পরিস্থিতির সম্পর্কে তুলে ধরবেন। রোহিঙ্গারা রাজি হলে যেকোনো সময় তাদের ভাসানচরে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন আরআরআরসি মাহবুবুল আলম তালুকদার।

উল্লেখ্যে ২০১৭ সালের আগস্টের পরে প্রায় ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে আশ্রয় নেয় উখিয়া-টেকনাফের ৩৪টি ক্যাম্পে। পরে বাংলাদেশ সরকার সার্বিক পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে তাদেরকে ভাসানচরে স্থানান্তরে সিদ্ধান্ত নেয়।