ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২

ভাইস চেয়ারম্যান কর্তৃক গোপাট দখল সংক্রান্ত ভূমি অফিসের প্রতিবেদন দাখিল

প্রকাশ: ২০২০-০৯-০৮ ২২:০৬:৪৭ || আপডেট: ২০২০-০৯-০৮ ২২:০৮:৫৩

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥
কক্সবাজারের উখিয়ায় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কর্তৃক সরকারি গোপাট দখল করে স্থাপনা নির্মাণের সংবাদ প্রকাশের পর টনক নড়েছে উপজেলা প্রশাসনের।

জানা গেছে, গত ৬ সেপ্টেম্বর উখিয়া উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) কার্যালয়ের প্রতিনিধিরা সরেজমিন তদন্ত পূর্বক উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে ৭ পৃষ্টার একটি প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। প্রতিবেদনে গোপাট দখলের ছবিসহ বেশকিছু তথ্য উপাত্ত রয়েছে বলে সূত্রে জানা গেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রতœাপালং মৌজার ১নং সিটের বিএস ৫৬৩, আরএস ৬৯৭ দাগের সরকারি গোপাট ভরাট করে স্থাপনা নির্মাণ করেছে উখিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানিয়েছেন বছর খানেক পূর্বে উখিয়া পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর ক্ষমতার প্রভাব কাটিয়ে সরকারি গোপাট দখল করলেও ভয়ে মুখ খুলতে সাহস করেনি স্থানীয়রা।

অপরদিকে প্রশাসনেরও রহস্যজনক ভূমিকা থাকায় সে ওই গোপাট দখল করে রাতারাতি একটি বহুতল স্থাপনা নির্মাণ করে। ফলে প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সচেতনমহল।

তবে সম্প্রতি গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত সংবাদ প্রকাশের পর উপজেলা প্রশাসন সরেজমিন পরিদর্শন করে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উখিয়া সহকারি কমিশনার (ভূমি) আমিমুল এহসান খান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উখিয়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম বলেন, গোপাটের উপর স্থাপনা নির্মাণের বিষয়টি ভিত্তিহীন। গোপাট থেকে ৩৫ ফুট দূরত্বে আমার স্থাপনা।

তিনি বলেন, সংবাদ প্রকাশের বিষয়টি ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ ছাড়া কিছু নয়। আমার চলাচলের সুবিধার্থে পানি নিষ্কাশনের জন্য গোপাটের উপর ৪ ফুট প্রশস্থে ৭০ ফুট দৈর্ঘ্যের নিজস্ব অর্থায়নে ড্রেনেজ ব্যবস্থা করা হয়। তদন্ত টীম সরেজমিনে বিষয়টি পরিদর্শন করেছেন। আশাকরি তদন্তে প্রকৃত বিষয়টি প্রকাশ হবে।