ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২

১৯৩ তম জামাতও অনুষ্ঠিত হবে না শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে

প্রকাশ: ২০২০-০৭-২৯ ১৬:০৪:৪২ || আপডেট: ২০২০-০৭-২৯ ১৬:০৪:৪২

সিএসবি২৪ ডেস্ক:
ঈদুল ফিতরের পর এবার আসন্ন ঈদুল আজহার ১৯৩ তম জামাতও অনুষ্ঠিত হবে না কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ ময়দানে।

করোনা পরিস্থিতির কারণে গত সোমবার বিকালে ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ পরিচালনা কার্যকরী পরিষদ ও সাধারণ পরিষদ’-এর এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জুম ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত এ সভায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলনকক্ষ ও অপর প্রান্তে শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ পরিচালনা কমিটির সদস্য, গণ্যমান্য ব্যক্তি, আলেম ওলামা ও সাংবাদিকরা সংযুক্ত ছিলেন।

সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক ও শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. সারওয়ার মুর্শেদ চৌধুরী।

সভায় জুম কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ, সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মো. আসাদ উল্লাহ, সিনিয়র সাংবাদিক সাইফুল হক মোল্লা দুলু প্রমুখ নিজ নিজ অফিস ও বাসা থেকে সংযুক্ত ছিলেন।

এ ছাড়া অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আব্দুল্লাহ আল মাসউদ, শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠ পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল কাদির মিয়া, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমএ আফজল, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপপরিচালক মো. ফারুক আহম্মেদ, জেলা আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক একেএম শামছুল ইসলাম খান মাসুম, আল জামিয়াতুল ইমদাদিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা সাব্বির হোসেন রশিদ, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. আব্দুস সাত্তার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ও সভার আলোচনায় অংশ নেন।

সভায় ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনামতো ঈদুল ফিতরের মতো শোলাকিয়া ঈদগাহ মাঠে ঈদুল আজহার ঈদ জামাত হবে না বলে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এ ছাড়া সবাইকে ঈদ জামাত ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে নিকটস্থ মসজিদে আদায়ের জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়।