ঢাকা, রোববার, ২৯ মে ২০২২

রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের হুমকিতে ঘরছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে অসহায় কৃষক পরিবার

প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৪ ১৯:১০:৫১ || আপডেট: ২০২০-০৩-২৪ ১৯:১৪:০৩

শ.ম গফুর, ক্যাম্প এলাকা থেকে…
কক্সবাজারের উখিয়া তেলীপাড়াস্থ রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৭ এর রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকি আর অস্ত্রের মহড়ায় নিরাপত্তাহীনতায় নিজেদের ঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে অসহায় কৃষক পরিবারের সদস্যরা।
জানা গেছে গত ১৬ মার্চ ভোরে কৃষক আব্দুস সাত্তারের ৬০ শতক ফসলা ধানের চারা উপড়ে ফেলেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় জড়িত ১৫ জন রোহিঙ্গা দুর্বৃত্তসহ অজ্ঞাতনামা আরো ২০/২২ জনের নামে উখিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক উখিয়ারঘাট তেলীপাড়ার মৃত জাফর আলমের ছেলে আবদুস সাত্তার।
এজাহার সুত্রে জানা গেছে, ১৬ মার্চ ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে ক্যাম্প-৭ এর মাহমদুল হক হাসানের ছেলে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মৌঃ রফিক, খাইরুল আমিনের ছেলে হেডমাঝি মুহিদুল্লাহ, হেডমাঝি ছৈয়দ নুর, মীর আহমদের ছেলে ছৈয়দ আকবর, ছানাউল্লাহ, জোবাইর ও কলিম উল্লাহ, সিদ্দিক মাঝি, তাহের, আজিজ, রহিম উল্লাহ, মোহাম্মদ উল্লাহ, এনাম, মৌং জোবাইর, আনোয়ার শাহ, আবছার ওরফে বুলবুল, জাবের ও আরফাতের নেতৃত্বে শতাধিক রোহিঙ্গা দুর্বৃত্ত ভোরে এসব ধানের রোপা উপড়ে ফেলে। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক আবদুস ছাত্তার নিজের ধান উপড়ে ফেলায় বাধা দিতে গেলে উল্টো প্রাননাশের ধমকি দিয়ে ধাওয়া দেয় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা।
এ ঘটনায় নিজেদের সহায় সম্পদ রক্ষা ও নিরাপত্তার বিষয়ে একাধিকবার ক্যাম্প-৭ এর সহকারী ইনচার্জ মোঃশাহজাহানের শরনাপন্ন হন আব্দুস সাত্তার। কিন্তু ক্যাম্প ইনচার্জের ভুমিকা বরাবরই রহস্যজনক বলে অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকের।
কৃষক আব্দুস সাত্তার জানায়, ক্যাম্প-৭ এর সহকারী ইনচার্জ আপোষের কথা বলে তাঁকে বারবার একা ডেকে পাঠাচ্ছে।
এ ঘটনায় রোহিঙ্গা এবং গ্রামবাসীদের মাঝে টান-টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুর্তে বড় ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা সংঘটিত করার আশংকা করছেন স্থানীয়রা।
এ বিষয়ে জানতে ক্যাম্প-৭ এর সহকারী ক্যাম্প ইনচার্জ মোঃশাহজাহানের মোবাইল বন্ধ থাকায় তাঁর বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মরজিনা আকতার বলেন, এ ঘটনায় মামলা রুজু হয়েছে। জড়িত রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।