ঢাকা, বুধবার, ২৫ মে ২০২২

উপকূলীয় মনখালী সড়কের বেহাল দশা

প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৪ ১৩:৩৭:৫৬ || আপডেট: ২০২০-০৩-২৪ ১৫:৪৬:২৩

পলাশ বড়ুয়া ॥

কক্সবাজারের উখিয়ার কোটবাজার থেকে মনখালী পর্যন্ত সড়কের বেহাল দশা। এলজিইডি সড়ক নামে ৩২ কিলোমিটার এই সড়ক যানবাহন চলাচলের যোগ্যতা হারিয়েছে। সড়কটিতে খানা খন্দের কারণে জনদুর্ভোগের যেন শেষ নেই। সবমিলিয়ে চলাচলের অনুপযোগি হয়ে পড়েছে কোটবাজার থেকে মনখালী পর্যন্ত উপকূলীয় এই সড়কটি।

সরেজমিনে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা গেছে-কোটবাজার থেকে সৈকতে যাওয়ার রাস্তাটি যেন বর্তমানে মরণ ফাঁদ পরিণত হয়েছে। এই সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয় বাসিন্দরা। বর্তমানে ওই সড়ক দিয়ে যানবাহন চলাচলে মারাত্মক অসুবিধা সৃষ্টির পাশাপাশি প্রতিদিন ছোট-বড় অনেক দুর্ঘটনা ঘটছে। শুধু তাই নয় ওই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করে স্কুল-কলেজগামী শত শত শিক্ষার্থী। তাদেরও যেন দুর্ভোগের শেষ নেই।

স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ার পাশাপাশি মেরিন ড্রাইভ রোড দিয়ে টেকনাফ থেকে পণ্যবাহী বিভিন্ন যানবাহন চলাচলের কারণে এলজিইডি সড়কটি ভেঙ্গে যাচ্ছে। বর্তমানে কোন রকমে সিএনজি, অটো রিক্সা চলাচল করতে পারলেও অন্যান্য যানবাহন চলাচল করার দু:সাধ্য হয়ে পড়েছে। আর বর্ষা মৌসুমে কোন যানবহন চলাচল করতে পারে না বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী ছৈয়দ আলম ও আবুল কাশেম।

এ বিষয়ে জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী বলেন, সড়কটির কিছু কিছু অংশ সংস্কার করা হয়েছে। জুন মাসের শেষের দিকে নতুন বাজেট হলে সড়কটি পুনরায় কাজ শুরু হবে বলে জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মো: রবিউল ইসলাম বলেন, ইতোমধ্যে সড়কটি সংস্কার ও কার্পেটিং কাজের জন্য বাজেট চুড়ান্ত করা হয়েছে। তৎমধ্যে উখিয়ার অংশে ৩২ কি:মি এর কাজের জন্য সম্ভাব্য বাজেট ৪০ কোটি টাকা। একই ভাবে টেকনাফ অংশেও উন্নয়নের কাজ শীঘ্রই শুরু হবে বলে তিনি জানান।