ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২

উখিয়ায় ফোর মার্ডারের ঘটনায় আটক হয়নি কেউ

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-২৭ ২১:১৮:৪০ || আপডেট: ২০১৯-০৯-২৭ ২১:২৪:৪৯


উদঘাটন হয়নি রহস্য ॥ অজ্ঞাত আসামি দেখিয়ে মামলা
দেশে ফিরেছে প্রবাসী রোকেন বড়ুয়া ॥ নিহতদের অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন ॥

উখিয়ায় ফোর মার্ডারের ঘটনায় আটক হয়নি কেউ

পলাশ বড়ুয়া॥
কক্সবাজারের উখিয়ায় একই পরিবারের চার সদস্য হত্যাকান্ডের ২ দিন গত হলেও ঘটনায় জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। তবে ঘটনার রহস্য উদঘাটনের প্রক্রিয়া চলছে। প্রকৃত অপরাধীদের চিহ্নিত করার মাঝামাঝি অবস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন।

তিনি আরও বলেন, হত্যাকান্ডের ব্যাপারে সুষ্পষ্ট কোন ক্লু পাওয়া না গেলেও তাদের ইন্টারনাল কেউ এই ঘটনায় জড়িত। এতে পারিবারিক এবং আর্থিক বিষয়ও থাকতে পারে। পরিবারের সদস্য এবং সন্দেহভাজনদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। অতিশীঘ্রই অপরাধীকে শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনতে সক্ষম হবে বলে তিনি জানান।


এদিকে খবর পেয়ে গতকাল রাতে ঢাকা পৌঁছে স্বজনহারা রোকেন বড়ুয়া। শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে কক্সবাজার পৌছালে সদর হাসপাতালের মর্গে গর্ভধারীনি মা সখি বড়ুয়া, স্ত্রী মিলা বড়ুয়া ও একমাত্র রবিন বড়ুয়া’র নিথর দেহ দেখে বারবার জ্ঞান হারিয়ে ফেলছিল রোকেন বড়ুয়া।

উখিয়ায় ফোর মার্ডারের ঘটনায় আটক হয়নি কেউ

ওই সময় রোকেন বড়ুয়া বলেন, কিছু আত্মীয় স্বজনের ব্যাপারে আমার সন্দেহ রয়েছে। বিষয়টি আমি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে জানিয়েছি।

ময়নাতদন্ত শেষে শুক্রবার দিন বিকেল ৫টায় কোটবাজারস্থ বৌদ্ধ মহাশ্মশান ও বোধিজ্ঞান ভাবনা কেন্দ্রে নিহতদের অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়। এর আগে পূর্বরত্না আনন্দ বিহারে নিহতদের উদ্দেশ্যে সংঘদান ও পূণ্যদান অনুষ্ঠিত হয়। নিহতদের শোকের সাথে সাথে মেঘাচ্ছন্ন পরিবেশও পুরো এলাকায় যেন নেমে আসে অমানিশার অন্ধকার।


নিহতদের অন্ত্যোষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠানে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের পাশাপাশি অন্য ধর্মের হাজার হাজার মানুষ এক নজর দেখতে ভিড় জমায়। এক নজর দেখতে আসা স্কুল ছাত্র রফিক ও কাশেম বলেন, এ হত্যাকান্ডের ঘটনার পর আমাদের মন ভেঙে গেছে। আমরা চাই দোষীদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হউক দ্রুত।

এ প্রসঙ্গে উখিয়া থানার ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম মজুমদার জানিয়েছেন, হত্যাকান্ডের ঘটনায় এখনো কেউ আটক হয়নি। তবে বিভিন্ন সূত্র ধরে তদন্ত কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। এ ঘটনায় অজ্ঞাতনামা আসামী করে নিহত মিলা বড়ুয়ার পিতা শশাংক বড়ুয়ার বাদী উখিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছে। যার নং- ৪৭।

উল্লেখ্য, গত বুধবার দিবাগত রাতে কক্সবাজারের উখিয়া রত্নাপালং ইউনিয়নের পূর্বরত্না গ্রামের একই পরিবারের নারী ও শিশুসহ ৪জনকে জবাই করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। পরদিন সকালে হত্যাকান্ডের বিষয়টি জানাজানি হলেও সন্ধ্যা ৬টায় কুয়েত প্রবাসী রোকেন বড়ুয়া’র বাড়ির ভিতর থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।