ঢাকা, সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২

নিখোঁজের একদিন পর পুকুর থেকে স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার॥

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-২০ ১৭:৩৭:৪৮ || আপডেট: ২০১৯-০৯-২০ ১৭:৩৭:৫২


থানায় মামলা- আটক ২

এ রায়হান চৌধূরী রকি, আটোয়ারী (পঞ্চগড়) থেকে ঃ পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে নিখোঁজের একদিন পর পুকুর থেকে স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

ঘটনাস্থলে গিয়ে জানাগেছে, গত বৃহস্পতিবার সন্ধায় উপজেলার ছোটদাপ গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক মোঃ আব্দুস সামাদ এর কন্যা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী সাদিয়া সামাদ লিছা (১৪) এর সাথে একই গ্রামের মোঃ ফারুক এর পুত্র মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র মোঃ আকাশ (১৫) এর সাথে কয়েক মাসে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। এর মধ্যে আকাশ লিছাকে একটি মোবাইল ফোন উপহার দেয়। এই মোবাইলের খবর লিছার মা জানতে পেরে আকাশের সাথে কথা বলতে আকাশের বাড়িতে যায়। কথা বলা শেষে বাড়ি ফিরে দেখে লিছা বাড়িতে নেই। পরে স্থানীয় এক নেতার বাসায় আকাশ সহ তার পরিবারকে ডেকে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এতে আকাশ তাকে ভালোবেসে মোবাইল ফোনও উপহার দেয়ার কথা স্বীকার করে জানান, আমি তাকে অপহরন করিনি তবে আমার দুই বন্ধু ছোটদাপ গ্রামের মজিবর রহমানের পুত্র খোশবাজার মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণীর ছাত্র মেহেদি হাসান মুন্না (১৪) ও মোঃ আখতার হোসেন (মাষ্টার) এর পুত্র দিনাজপুর স্কুলের ৮ম শ্রেণীর ছাত্র সৈয়দ রহমান সাধ (১৫) এই কাজটি করতে পারে। পরে তাদেরকেও ডেকে আনা হয় সেই মজলিশে।

মুন্না জানায়, আমি তাকে ছোট বোন বানিয়েছি বিধায় তার ভালো মন্দ দেখি মাত্র। তবে সাধ বিকেলে লিসার বাসায় গিয়ে তার মাকে হুমকি দিয়ে আসে। আমি তার জন্য আকাশের কাছে মার খেয়েছি, আমি তাকে দেখে নিব। এসব কথার সত্যতা জানতে পেরে সকালে থানায় দেয়া হবে বলে আটক করে রাখা হয় ওই তিন জনকে।

অনেক খোজার পর ভোরে বাড়ির পাশের্^ তার নিজের পুকুরে লিসার মরদেহ ভেষে উঠা দেখে চিৎকার করে লিসার চাচা। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে সুরতহালের মাধ্যেমে পঞ্চগড় মর্গে প্রেরণ করেন।

এর মধ্যে একজন লাশ পাওয়ার খবর পেয়ে ভোরে সেই নেতার বাড়ি থেকে পালিয়ে যায় সৈয়দ রহমান সাধ। আর বাকী দুইজনকে সকালে থানায় সোর্পেদ করা হয়। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত কোন মামলা রুজু হয়নি তবে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

স্কুল ছাত্রী লিছার মৃত্যুতে শোকের ছায়া পড়েছে আটোয়ারীর সর্বস্থরে। এ ঘটনা শুনে পঞ্চগড় জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর রহমান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ তৌহিদুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ মাহমুদ হাসান, অফিসার ইনচার্জ মোঃ আঃ রাজ্জাক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।