ঢাকা, সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২

রোহিঙ্গাদের এনআইডি : ইসি কর্মচারীকে বরখাস্ত

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৭ ১৭:০০:৫২ || আপডেট: ২০১৯-০৯-১৭ ১৭:০০:৫৮

রোহিঙ্গাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) দেওয়ার অভিযোগে করা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত ডবলমুরিং থানা নির্বাচন কার্যালয়ের অফিস সহায়ক জয়নাল আবেদীনকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়।

আজ মঙ্গলবার সকালে এক আদেশে ইসি উপসচিব আশরাফুল আলম ওই অফিস সহায়ককে বরখাস্ত করেন।

রোহিঙ্গাদের এনআইডি পাইয়ে দেওয়া ও ল্যাপটপ গায়েব হওয়ার ঘটনায় চট্টগ্রাম নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ের পিয়নসহ গ্রেপ্তার হওয়া পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার রাত আড়াইটার দিকে নগরীর ডাবলমুরিং থানা নির্বাচন অফিসের কর্মকর্তা পল্লবী চাকমা বাদী হয়ে নগরীর কোতোয়ালি থানায় এ মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন, নগরীর ডবলমুরিং থানা নির্বাচন অফিসের অফিস সহায়ক জয়নাল আবেদীন (৩৫), গাড়িচালক বিজয় দাস (২৬) ও তার বোন সীমা দাস (২৪)। বাকি দুই আসামির নাম তদন্তের স্বার্থে পুলিশ গোপন রেখেছে।

জানা গেছে, অফিস সহায়ক জয়নাল আবেদীন দীর্ঘদিন ধরে রোহিঙ্গাদের এনআইডি পাইয়ে দিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিলেন। নির্বাচন কমিশনের করা তদন্ত কমিটির তদন্তে জয়নালের নাম আসলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে জয়নাল তার হেফাজতে থাকা নির্বাচন কমিশনের ল্যাপটপের বিষয়ে কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তার বন্ধু বিজয় দাসকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে বিজয় জানান, ল্যাপটপটি তার বোন সীমা দাসের কাছে রয়েছে। সীমা দাস ল্যাপটপ নিয়ে আসলে তাকেও গ্রেপ্তার করা হয়। এই ল্যাপটপ দিয়ে ওয়েবক্যামে ছবি তোলাসহ সব কাজ করা যায়।