ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর গুলিতে নিহত ৬

প্রকাশ: ২০১৯-০৫-০৩ ২০:০৮:১১ || আপডেট: ২০১৯-০৫-০৩ ২০:০৮:১৬

অনলাইন ডেস্ক: মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে আটক অন্তত ছয়জন নিরস্ত্র মানুষকে গুলি করে হত্যা করেছে সেনাবাহিনী।

বৃহস্পতিবার সেনা সদস্যদের অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে একটি স্কুলে আটকে রাখা ওই ব্যক্তিদের গুলি করে হত্যা করা হয় বলে শুক্রবার সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন।

বিবিসি বলছে, একটি বিদ্রোহী পক্ষের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে আটক করে ওই স্কুলটিতে রাখা হয়েছে মানুষগুলোকে। সেখানে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

রাখাইনে সাংবাদিক এবং বিভিন্ন সাহায্যকারী সংস্থার প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকায় বৃহস্পতিবার সকালে আসলে কী ঘটেছিল সে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করা যায়নি বলেও জানিয়েছে বিবিসি। 

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মুখপাত্র বিগ্রেডিয়ার জেনারেল জ মিন তুন বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একটি স্কুলে ২৭৫ জনকে আটকে রাখা হয়।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে নিরাপত্তারক্ষী সদস্যদের ওপর হামলার চেষ্টা করলে কোনও উপায় না পেয়ে গুলি করে সেনাবাহিনী। এসময় ছয়জন নিহত হয়।

মিয়ানমারে বেশ কয়েকটি ধর্ম-বর্ণের মানুষের বসবাস; সেখানে কয়েকটি বিদ্রোহী পক্ষও অবস্থান করছে।

সম্প্রতি মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নিপীড়নের শিকার হয়ে বাংলাদেশসহ বেশ কয়েকটি দেশে পালিয়ে এসেছেন কয়েক লক্ষ রোহিঙ্গা। মিয়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গেও মুখোমুখী দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন অনেকে।

রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর সেনাবাহিনীর দমন-পীড়নকে যুদ্ধাপরাধ বলে বর্ণনা করেছে জাতিসংঘ। তবে সংস্থাটির এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী।