ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২

উখিয়ায় ঘুর্ণিঝড় ‘ফণী’ মোকাবেলায় প্রস্তুত প্রশাসন, হাল্কা ভাবে দেখছে সাধারণ মানুষ

প্রকাশ: ২০১৯-০৫-০৩ ১৭:৩৬:২৬ || আপডেট: ২০১৯-০৫-০৩ ১৭:৩৬:৪৫

পলাশ বড়ুয়া:
সকাল থেকে ধমকা হাওয়া বইতে শুরু করেছে। বাতাসের ঘতির কারণে রাস্তাঘাট পরিষ্কার হয়ে গেছে। রোদ্রময় পরিবেশ থাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে এখনো ফনী’র প্রভাব দেখা যাচ্ছে না। ঘুর্ণিঝড়কে হালকা ভাবে দেখছে সাধারণ মানুষ। এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ শুক্রবার সন্ধ্যায় দেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তর পূর্বাভাস দিয়ে এই বিষয়ে সতর্ক করেছে। ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় উপকূলীয় এলাকা কক্সবাজারের উখিয়ায় ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে উপজেলা প্রশাসন।


সম্ভাব্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ ফণী মোকাবেলায় উখিয়া উপজেলা নির্বাহী মো: নিকারুজ্জামান চৌধুরী জানিয়েছেন, উখিয়া উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের স্থানীয় মানুষের পাশাপাশি রোহিঙ্গা ক্যাম্পেও প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।


তিনি আরো জানান, দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের ৪ মে’র পরীক্ষাটি দুর্যোগপূর্ণ স্থগিত করা হয়েছে, পরীক্ষাটি আগামী ১২ মে তারিখের পূর্বে ঘোষিত সময়সূচিতে উক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।


ঘুর্ণিঝড় ফণী মোকাবেলায় উখিয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ মো: ইমদাদুল হক জানিয়েছেন, উখিয়া স্থানীয় এবং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দূর্যোগ মোকাবেলায় ৫টি টিম গঠন করা হয়েছে। ৬ সদস্য বিশিষ্ট দুইটি রেসকিউ টীম, ৪ সদস্য বিশিষ্ট দুইটি ফাষ্ট এইড টীম এবং ৪ সদস্যের একটি বিশেষ একটি ওয়ার্টার রেসকিউ টীম করা হয়েছে। তৎমধ্যে একটি করে টিম রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এবং স্থানীয়দের জন্য প্রস্তুত রয়েছে বলেও তিনি জানান ।


এ ছাড়াও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট, আর্মড ফোর্সেস ডিভিশন (এএফডি), ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খুলেছে। সেখান থেকে সাবধান হওয়ার জন্য বলা হচ্ছে। এদিকে ত্রাণ ও দূর্যোগ ব্যবস্থা মন্ত্রণালয় থেকে আবওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তি নম্বর-৩৫ আজ শুক্রবার সকাল ১০টায় কক্সবাজারের সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।


ঘুর্ণিঝড় ‘ফণী’ মোকাবেলায় জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সওজ, এলজিইডিসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন বিভাগ ও সংস্থাকে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে।