ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

এইচএসসির শনিবারের পরীক্ষা পেছাল

প্রকাশ: ২০১৯-০৫-০২ ১৯:০১:৩৬ || আপডেট: ২০১৯-০৫-০২ ১৯:০২:০৫

অনলাইন ডেস্ক: ঘূর্ণিঝড় ‌‘ফণী’র কারণে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) ও সমমানের ৪ মে’র (শনিবার) সব পরীক্ষা আগামী ১৪ মে নির্ধারিত সময় অনুযায়ী অনুষ্ঠিত হবে।

আজ বৃহস্পতিবার (০২ মে) আন্তঃশিক্ষাবোর্ড সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ জিয়াউল হক এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‌‘৪ মে’র সকালের পরীক্ষাগুলো ১৪ মে সকালে এবং বিকেলেরগুলো ওইদিন বিকেলে নেওয়া হবে।’

এইচএসসিতে ৪ মে সকালে উচ্চতর গণিত প্রথম পত্র এবং ইসলাম শিক্ষা প্রথম পত্রের পরীক্ষা ছিল। আর বিকেলে ছিল গার্হাস্থ্য বিজ্ঞান প্রথম পত্রের পরীক্ষা ছিল।

এ ছাড়া মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে ৪ মে জীববিজ্ঞান প্রথম পত্রের (তত্ত্বীয়) সূচি নির্ধারিত ছিল।

উল্লেখ্য, আগামীকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় দেশের খুলনায় আঘাত হানতে পারে ‘ফণী’।এটি শক্তিশালী আকার ধারণ করায় যেকোনো ভাবেই হোক বাংলাদেশে আসবেই বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক শামছুদ্দিন আহমদ। তাই খুলনা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত থেকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত জানানো হয়েছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় দেশের উপকূলীয় ১৯ জেলায় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ খোলা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির (সিপিপি) ৫৬ হাজার স্বেচ্ছাসেবককে প্রস্তুত রাখার পাশাপাশি উপকূলীয় সেনা ক্যাম্পগুলোকে সতর্ক রাখা হয়েছে।

ইতিমধ্যে মাইকিং করে প্রস্তুতিমূলক কাজ শুরু হয়েছে। উপকূলীয় জেলার ডিসিদের দুইশ মেট্রিক টন চাল পৌঁছে দেওয়া হয়েছে; জেলা প্রশাসকদের পাঁচ লাখ করে টাকা দেওয়া আছে জরুরি সহায়তার জন্য।

এ ছাড়া ঘূর্ণিঝড়ের ঝুঁকিতে থাকা এলাকার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাপ্তাহিক ছুটি এবং অন্যান্য ছুটি বাতিল করে তাদেরকে কর্মস্থলে উপস্থিত থাকতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।