ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২

শপথ নিলেন বিএনপির চার সংসদ সদস্য

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-২৯ ২০:০০:৪৩ || আপডেট: ২০১৯-০৪-২৯ ২০:০০:৪৭

অনলাইন ডেস্ক: নানা নাটকীয়তার পর অবশেষে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নিলেন বিএনপির চারজন নির্বাচিত প্রতিনিধি।

তারা হলেন- চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনের মো. আমিনুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের মো. হারুন অর রশীদ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া ও বগুড়া-৪ মোশাররফ হোসেন।

সোমবার (২৯ এপ্রিল) পৌনে ৬টার দিকে সংসদ ভবনে তাদের শপথ বাক্য পাঠ করান স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী। এর আগে বিকেল সোয়া ৫টার দিকে সংসদ ভবনে পৌঁছান তারা।

সংসদের ভেতরে প্রবেশের আগে হারুন অর রশিদ সাংবাদিকদের জানান, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে তারা শপথ নিতে এসেছেন।

তিনি বলেন, ‘দেশে সরকার থাকবে, আইনের শাসন থাকবে না এটা হবে না। এসব আমরা বলার জন্য সংসদে বলবো। আমরা আশা করবো সরকার অচিরেই সংসদ ভেঙে দিয়ে সবার অংশগ্রহণে নির্বাচনের ব্যবস্থা করবে।’

গত ৩০ ডিসেম্বরের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে মোট আটজন সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন৷ তাদের মধ্যে ছয়জন বিএনপির এবং দুজন গণফোরামের৷

৩০ জানুয়ারি জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন বসলেও ৮ মার্চ শপথ নেন মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে গণফোরামের সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ৷ আর ২ এপ্রিল শপথ নেন গণফোরাম থেকে নির্বাচিত আরেকজন সংসদ সদস্য সিলেট-২ আসন থেকে নির্বাচিত মোকাব্বির হোসেন৷

নির্বাচনের পরপরই বিএনপি তথা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনে অনিয়ম এবং ভোট ডাকাতির অভিযোগ তুলে নির্বাচন বয়কট এবং নতুন নির্বাচনের দাবি জানায়৷ দলের নির্বাচিত এমপিরা শপথ নেবেন না বলেও জানানো হয়৷ পরে গণফোরামের দুই এমপি শপথ নিলেও বিএনপি শপথ না নেয়ার সিদ্ধান্তে অনড়৷

সংবিধান অনুযায়ী সংসদের প্রথম অধিবেশনের পরবর্তী ৯০ দিন পর্যন্ত নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ নিতে হয়৷ নয়তো আসন শূন্য হয়৷ তবে কোনো সংসদ সদস্য যৌক্তিক কারণ দেখিয়ে এই সময় বাড়িয়ে নিতে পারেন৷ কোনো আসন শূন্য হলে পরবর্তী ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন করার বিধান রয়েছে৷

দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করেই গত বৃহস্পতিবার শপথ নেন জাহিদুর রহমান জাহিদ। পরে দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে তাকে বহিষ্কার করা হয়। আর বাকিরা শপথ নেবেন না বলে জানানো হয়।

তবে এই সিদ্ধান্তের মধ্যেই শপথ নিতে যাচ্ছেন আরও চারজন। এখন শুধু মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শপথ নেয়ার বাকি থাকবেন।