ঢাকা, শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

বোরকা নিষিদ্ধ হচ্ছে শ্রীলঙ্কায়?

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-২৫ ১১:২০:০০ || আপডেট: ২০১৯-০৪-২৫ ১১:২৬:৪২

অনলাইন ডেস্ক: শ্রীলঙ্কাতে পরপর আটটি বোমা হামলায় দেশটির নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।ওই হামলায় একাধিক নারী বোরকা পরে অংশগ্রহণ করেছিল বলে ধারণা করছে গোয়েন্দারা। আর তাই নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখেই এবার সেখানে বোরকা পরা নিষিদ্ধ করতে এক পদক্ষেপ নিতে চলেছে শ্রীলঙ্কা সরকার।

গতকাল বুধবার শ্রীলঙ্কার দৈনিক ডেইলি মিরর-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে,রোববার ইস্টার সানডেতে হামলার শিকার নানা ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া আলামত অনুযায়ী গোয়েন্দারা ধারণা করছে, সিরিজ বোমা বিস্ফোরণে বোরকা পরা নারীদের একটি বড় দল অংশগ্রহণ করেছিল। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশটিতে বোরকা ও নিকাব পরা নিষিদ্ধ করতে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে সরকার।

দেশটির পার্লামেন্টের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে,  দেশে বোরকা নিষিদ্ধ করতে একাধিক মন্ত্রী প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনার সঙ্গে কথা বলেছেন। ইতিমধ্যেই এ নিয়ে দেশের মসজিদ কর্তৃপক্ষগুলোর সঙ্গে কথা শুরু করেছে সরকার।

রোববারের দেশটিতে সিরিজ বোমা হামলায় এখন পর্যন্ত ৩৫৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।  আহত হয়েছেন ৫০০ জন। সোমবার কলম্বোর একটি এলাকায় জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালায় সেনাবাহিনী। সেখান থেকে সেনার নাগাল এড়িয়ে বহু জঙ্গি বোরকা পরে পালিয়ে গিয়েছে বলে দাবি একটি সংবাদপত্রে।

উল্লেখ্য, শ্রীলঙ্কা স্বাধীনের পর সেখানে মুসলিমদের মধ্যে বোরকার চলন ছিল না। কিন্তু ১৯৯০ সালে উপসাগরীয় যুদ্ধের পর তা এই দ্বীপরাষ্ট্রে এটি চালু হয়। ফলে এই বোরকাকেই জঙ্গিরা পালাবার অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করতে পারে বলে ধারণা গোয়েন্দাদের।

টানা আটটি সিরিজ বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫৯ জনে দাঁড়িয়েছে।  এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও পাঁচ শতাধিক মানুষ।  গত রোববার শ্রীলঙ্কায় তিনটি গির্জা, তিনটি হোটেল ও আরও কয়েকটি জায়গায় এ সিরিজ বোমা হামলা চালানো হয়।

এদিকে শ্রীলঙ্কায় হামলার দুদিন পর দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)। বিস্ফোরণে জড়িত থাকার অভিযোগে এখন পর্যন্ত ৪০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে বিস্ফোরণে নিহত এক আত্মঘাতী জঙ্গির গাড়ির চালককেও। এনিয়ে আরও ধরপাকড় চলেছে। এ ব্যাপারে পুলিশকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিয়েছে সরকার।

এদিকে শ্রীলঙ্কায় যদি বোরকা নিষিদ্ধ হয় তাহলে দেশটি নাম জুড়ে যাবে চাঁদ, ক্যামেরুন, গ্যাবন, মরক্কো, অস্ট্রিয়া, বুলগেরিয়া, ফ্রান্স, বেলজিয়াম ও চিনের জিন জিয়াং প্রদেশে। এসব দেশে আগেই বোরকা নিষিদ্ধ করা হয়েছে।