ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

ফেরদৌসকে বাংলাদেশে ফিরে আসার নির্দেশ বাংলাদেশ হাইকমিশনের

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-১৬ ২০:৩০:৫৩ || আপডেট: ২০১৯-০৪-১৬ ২০:৩৪:৩৩

বিনোদন ডেস্ক: ভারতে লোকসভা নির্বাচনের প্রচারণায় অংশ নিতে গিয়ে তুমুল বিতর্কের মুখে পড়া বাংলাদেশের জনপ্রিয় নায়ক ফেরদৌস আহমেদকে বাংলাদেশে ফিরে আসার নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশি হাইকমিশন।

এরই মধ্যে ফেরদৌসের ভিসা বাতিল করেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। মডেল কোড অব কন্ডাক্ট ভাঙার অভিযোগে তার ভিসা বাতিল হয়েছে।

১৬ এপ্রিল, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বর্তমানে ভারতে চলছে ১৭তম লোকসভা নির্বাচন। প্রথম দফায় ১৮টি রাজ্যের ৯১টি আসনে ১১ এপ্রিল ভোট হয়ে গেছে। এপ্রিল ও মে-জুড়ে চলমান এই নির্বাচন উপলক্ষে প্রচারে নেমেছেন ঢালিউড আর টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ।

উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে তৃণমূল প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের সমর্থনে প্রচারণা করছিলেন বাংলাদেশের এ নায়ক।

বিজেপির পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দেওয়ার পর এরই মধ্যে ভারতীয় ফরেনার্স রিজিয়নাল রেজিস্ট্রেশন অফিস থেকে এ ব্যাপারে রিপোর্ট চেয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তবে কর্তৃপক্ষ এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানায়নি। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

কমিশনে অভিযোগ দায়ের করার পর বিজেপি নেতা জেপি মজুমদার এএনআইকে বলেন, ‘ভারতে নির্বাচনি প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারেন না বিদেশিরা। তৃণমূল ফেরদৌসকে প্রচারে ব্যবহার করে নির্বাচনি বিধি ভঙ্গ করেছে। ভিসার নিয়ম ভাঙার জন্য ওর গ্রেফতার হওয়ার কথা।’

ফেরদৌস কীভাবে ভারতে লোকসভা ভোটের প্রচারে অংশ নিলেন, তা খতিয়ে দেখার জন্য তদন্ত কমিটি গড়েছে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

১১ এপ্রিল ভারতে লোকসভা নির্বাচনের প্রথম দফায় ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। দ্বিতীয়, তৃতীয়, চতুর্থ, পঞ্চম, ষষ্ঠ ও সপ্তম দফার ভোট রয়েছে যথাক্রমে ১৮ এপ্রিল, ২৩ এপ্রিল, ২৯ এপ্রিল, ৬ মে, ১২ মে ও ১৯ মে। এরপর ২৩ মে ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

পশ্চিমবঙ্গ থেকে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন তৃণমূল থেকে অভিনেত্রী নুসরাত ও নায়ক দেব এবং বিজেপি থেকে গায়ক বাবুল সুপ্রিও।

লোকসভা নির্বাচনের প্রচারণায় অংশ নেওয়ায় বাংলাদেশের অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদকে গ্রেফতার করা হতে পারে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে কলকাতার কিছু গণমাধ্যমে।