ঢাকা, শুক্রবার, ১ জুলাই ২০২২

বছরের শুরুতে প্রথম চন্দ্রগ্রহণ নিয়ে এলো সুপার মুনের বোনাস

প্রকাশ: ২০১৯-০১-২১ ১৮:২৭:০৫ || আপডেট: ২০১৯-০১-২১ ১৮:২৭:০৫

অনলাইন ডেস্ক:

বছরের শুরুতে প্রথম চন্দ্রগ্রহণ নিয়ে এলো সুপার মুনের বোনাস। গতকাল রোববার রাতে আকাশে দেখা পাওয়া গেল রক্তিম নেকড়ে চাঁদ। এটি ২০২১ সালের আগে আর দেখা যাবে না।

বাংলাদেশ সময় আজ সোমবার সকাল ৮টা ৩৬ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে পূর্ণগ্রাসে দৃশ্যমান হয়েছে চাঁদ। তবে বাংলাদেশ বা এশিয়ার কোনো দেশ থেকে এ দৃশ্য দেখা যায়নি।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, চন্দ্রগ্রহণটি শেষ হয়েছে দুপুর ১টা ৪৮ মিনিটে। আর পুরোপুরিভাবে চন্দ্রগ্রহণ হয়েছে ১১টা ১২ মিনিট ১৬ সেকেন্ডে। উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকায় পুরোপুরিভাবে এবং পশ্চিম ইউরোপ ও উত্তর-পশ্চিম আফ্রিকার কিছু স্থানে আংশিকভাবে দেখা গেছে চন্দ্রগ্রহণটি।

চাঁদ, সূর্য ও পৃথিবী এক সরলরেখায় থাকলে এবং চাঁদের ওপর পৃথিবীর ছায়া পড়লে চন্দ্রগ্রহণ হয়। এ সময় সূর্যরশ্মি ছড়িয়ে পড়ে এবং পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রতিসরিত হয়ে চাঁদের ওপর গিয়ে পড়ে বলে চাঁদকে রক্তিম লাগে।

যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণাকেন্দ্র নাসার তথ্য মতে, চাঁদ নিজের কক্ষপথে আবর্তনের যে পর্যায়ে পৃথিবীর খুব কাছে চলে আসে, তখন সুপারমুন দেখা দেয়। এ সময় পৃথিবী থেকে চাঁদকে ১৪ শতাংশ বড় দেখায়। এর উজ্জ্বলতাও বেড়ে যায় ৩০ শতাংশ পর্যন্ত।

আমেরিকার আদি বাসিন্দাদের কাছে বছরের প্রথম সুপারমুনটি ‘নেকড়ে চাঁদ’ নামে পরিচিত। তাদের বিশ্বাস, ওই পূর্ণিমায় পৃথিবী চাঁদের আলোয় এতটাই ভেসে যায় যে নেকড়েরা ডেরা থেকে বেরিয়ে ডাকতে শুরু করে।