ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২

জার্মান রাষ্ট্রদূতের টেকনাফ শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন

প্রকাশ: ২০১৯-০১-১৭ ২১:৪৩:৫১ || আপডেট: ২০১৯-০১-১৭ ২১:৪৩:৫১

 

হুমায়ূন রশিদ, টেকনাফ:
জার্মানের রাষ্ট্রদূত টেকনাফে শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শন শেষে তিনি রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশে ক্ষতিগ্রস্থ হোষ্ট কমিউনিটির সাথে মতবিনিময় করেন।

১৭ জানুয়ারী সকাল ১০টারদিকে বাংলাদেশে নিযুক্ত জার্মান রাষ্ট্রদূত মি পিটার ফারেন হুলস টেকনাফের অনিবন্ধিত লেদা রোহিঙ্গা বস্তি পরিদর্শন করেন। এই সফর সঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এনজিও সংস্থা আনন্দের নির্বাহী পরিচালক মোঃ মনিরুজ্জামান মিয়া, এরিয়া ম্যানেজার মোঃ হাসান চৌধুরী, রেসপন্স কো-অর্ডিলেটর বজলুর রশিদ। শরণার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে তিনি পৌরসভায় এলে পৌর মেয়র, কাউন্সিলর ও মহিলা কাউন্সিলরগণ ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন। এরপর ১১টারদিকে পৌরসভার হলরোমে হোষ্ট কমিউনিটির লোকজনের সাথে মতবিনিময় করেন। এতে টেকনাফ পৌরসভার মেয়র হাজী মোঃ ইসলাম, কাউন্সিলর আব্দুল্লাহ মনির, মনিরুজ্জামান, আবু হারেছ, হোছন আহমদ, মহিলা কাউন্সিলর নাজমা আলম, কহিনুর আক্তার, দিলরুবা খানম, টেকনাফ পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলম বাহাদুর, পৌর সচিব মহি উদ্দিন ফয়েজী, ইঞ্জিনিয়ার জহির উদ্দিন আহমদ ও উপসহকারী মুর্শেদুল ইসলামসহ বিভিন্ন স্তরের মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময়কালে হোষ্ট কমিউনিটির লোকজন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের ফলে স্থানীয়দের শ্রম বাজার দখল, মাদক চোরাচালানে সম্পৃক্ততা, রাস্তা-ঘাটের ক্ষয়ক্ষতি, খাদ্য সংকট ও আইন-শৃংখলার অবনতির চিত্র তুলে ধরেন।

প্রতি উত্তরে জার্মান রাষ্ট্রদূত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে সহায়তার জন্য ধন্যবাদ জানান। জার্মান সরকার রোহিঙ্গাদের সহায়তার পাশাপাশি স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের জন্য চিন্তা-ভাবনা করছে। বাংলাদেশ সরকারের সাথে ফলপ্রসু আলোচনা স্বাপেক্ষে রোহিঙ্গাদের নিয়ন্ত্রণে রাখার পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্থ স্থানীয় মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্¦াস প্রদান করেন। এরপর তিনি টেকনাফ জেটিঘাট পরিদর্শন করে মেরিন ড্রাইভ সড়ক হয়ে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে টেকনাফ ত্যাগ করেন।