ঢাকা, শুক্রবার, ১ জুলাই ২০২২

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা শেষ কাল শুক্রবার

প্রকাশ: ২০১৮-১২-২৭ ১১:৫৮:২১ || আপডেট: ২০১৮-১২-২৭ ১১:৫৯:৪৫

অনলাইন ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট গ্রহণের বাকি দুদিন। শেষ মুহূর্তে ভোটের মাঠে বইছে উত্তাপ। শেষ মুহূর্তের প্রচারে ব্যস্ত প্রার্থীরা। কাল শুক্রবার সকাল পর্যন্ত নির্বাচনী প্রচার চালানো যাবে। চলছে ইসির ফাইনাল প্রস্তুতি। ৩০০ আসনের মধ্যে ইতোমধ্যে ২৯৯ আসনের ব্যালট মুদ্রণ সম্পন্ন করেছে ইসি। অধিকাংশ জেলায়ই গতকাল পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। আইনি জটিলতা চট্টগ্রাম-৪ আসনের ব্যালট মুদ্রণ করা হয়নি।ইসির মুদ্রণ শাখা সূত্র জানায়, আদালতের নির্দেশনায় কয়েকটি আসনে পুনরায় ব্যালট মুদ্রণ করা হয়েছে। আমাদের প্রস্তুতি ফাইনাল। বৃহস্পতিবারের মধ্যে সব জেলায় ব্যালট পঠিয়ে দেওয়া হবে।

ইসি সূত্রমতে, এ পর্যন্ত আদালতের নির্দেশনায় প্রার্থী পরিবর্তন হওয়ায় ২৫ আসনে পুনরায় ব্যালট মুদ্রণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ তথ্য অনুসারে গতকাল আদালতের নির্দেশনায়, নরসিংদী-৩, গাইবন্ধা-৪ ও নাটোর-৪ আসনে প্রার্থী পরিবর্তন হয়েছে। এসব আসনে পুনরায় ব্যালট মুদ্রণ করতে হবে।

এদিকে ধানের শীষ নিয়ে জামায়াতের ২৫ প্রার্থিতা অযোগ্যতা ঘোষণার দাবিতে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়েছে। আজ এ রিটের ওপর শুনানি হবে।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, বিজি প্রেসসহ ঢাকার ৩টি প্রেস থেকে ব্যালট পেপার বিতরণ করা হয়েছে। প্রথম দিন বুধবার ২২ জেলায় পাঠানো হয়। পরের দিন বাকি জেলাগুলোয় ব্যালট বিতরণ করা হয়। এসব কার্যক্রমের নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুলিশ ও র্যাব মোতায়েন করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার পুনরায় মুদ্রণ ও বাকি জেলাগুলোয় পাঠানো হবে।

ইসি সূত্রমতে, আদালত এই ২৫ প্রার্থীর বিষয়ে স্থগিতাদেশ এলেও সেসব আসনে পুনরায় ব্যালট মুদ্রণ করার প্রস্তুতি নিয়ে রাখছে। যদিও এসব আসনে ইতোমধ্যে ব্যালট পেপার পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে ভোট গ্রহণের ৪৮ ঘণ্টা আগেই বন্ধ হবে সব ধরনের প্রচার। অর্থাৎ ২৮ ডিসেম্বর সকাল ৮টার পর প্রার্থীরা আর কোনো সভা-সমাবেশ, নির্বাচনী গণসংযোগ, শোভাযাত্রা, মিছিল করতে পারবে না। সে হিসেবে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত প্রচার চালাতে পারবেন প্রার্থীরা। গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের (আইপিও) ৭৮ ধারা অনুযায়ী ভোটের পর আরও দুদিনও একই নিয়ম বলবৎ থাকবে। অর্থাৎ ২৮ ডিসেম্বর সকাল ৮টা থেকে ১ জানুয়ারি বিকাল ৪টা পর্যন্ত সারা দেশে সব ধরনের সভা-সমাবেশ, নির্বাচনী গণসংযোগ, শোভাযাত্রা, মিছিল বন্ধ থাকবে।

গত ১৯ ডিসেম্বর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে বিষয়টি স্থানীয়ভাবে ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীকে অবহিত করার জন্য বলা হয়েছে।

এ ছাড়া আগামীকাল ২৮ ডিসেম্বর মধ্যরাত থেকে যানবাহন চলাচলের ওপরও নিষেধাজ্ঞা থাকবে। ওই দিন থেকে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলের ওপরও নিষেধাজ্ঞা থাকবে।