ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মে ২০২২

সমুদ্রপথে পাচারকালে ১০ রোহিঙ্গা উদ্ধার, দালাল আটক

প্রকাশ: ২০১৮-১১-৩০ ২০:১৬:১৭ || আপডেট: ২০১৮-১১-৩০ ২০:১৬:১৭

 

নিজস্ব প্রতিবেদক::

সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া পাচারকালে টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপ থেকে ছয় নারীসহ ১০ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-৭।

এ সময় আবদুর রহমান (২৫) নামে এক দালালকেও আটক করা হয়েছে। সে টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপ মাঝার পাড়ার ফজরুল হকের ছেলে।

শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীরদ্বীপ ঘোলারচর মাঝেরপাড়া থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার রোহিঙ্গারা হলেন- মো. জিয়া, রশিদ ইল্লাহ, নুর আলম, মো. জাবের, মো. মোকাদেছা, জান্নাত আরা, সেতেরা, জোলেখা, রোজিনা ও সলিকা। তারা সকলেই উখিয়া, কতুপালং, জাদিমুরা, মৌচনী ও টেকনাফের রোহিঙ্গা শিবিরের বাসিন্দা।

র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ইনচার্জ মেজর মোঃ মেহেদী হাসান জানান, শুক্রবার দিবাগত রাতে সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া নিয়ে যাওয়ার কথা বলে শাহপরীর দ্বীপের বাসিন্দা আবদুর রহমানের বাড়িতে কিছু রোহিঙ্গাকে জড়ো করে রাখা হয়েছে এমন সংবাদে তার নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল ওই বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে তাদের উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দালাল ও বাড়ির মালিক আবদুর রহমানকে আটক করা হয়।

উদ্ধার রোহিঙ্গাদের বরাত দিয়ে মেজর মেহেদী আরও জানান, নিরাপদে মালয়েশিয়া পৌঁছে দেয়ার প্রলোভনে ১০ হাজার টাকা ‘টোকেন মানি’ নিয়ে তাদের সেখানে নিয়ে আসা হয়। গভীর সাগরে একটি বড় ট্রলারে তাদের তুলে দেয়ার কথা ছিল। মালয়েশিয়া পৌঁছার পর আরও ২ লাখ টাকা করে দেয়ার চুক্তি হয় তাদের।

এছাড়াও রোহিঙ্গা নারীদের সেখানে বিয়ের ব্যবস্থার কথাও হয় বলে দাবি করেন নারীরা। এ ঘটনায় মানবপাচার আইনে মামলা দিয়ে তাদেরকে টেকনাফ মডেল থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।