ঢাকা, বুধবার, ২৯ জুন ২০২২

কক্সবাজারে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ারসহ আটক-৩

প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৭ ১৭:৫৮:০৯ || আপডেট: ২০১৮-০৯-০৭ ১৭:৫৮:০৯

কক্সবাজারে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ারসহ আটক-৩

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার উপকূলীয় চোয়ানখালী এলাকায় ইয়াবাসহ র‌্যাবের অভিযানে ধরা পড়েছেন মো. মেরাজ উদ্দিন (৩০) নামে একজন এমবিবিএস চিকিৎসক।

বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করলেও বিষয়টি জানাজানি হয় রাতে।।

মেরাজ বাংলাদেশ আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রে (আইসিডিডিআরবি) মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন বলে র‌্যাব সূত্র জানিয়েছে। তিনি নোয়াখালী জেলার বেগমগঞ্জ থানার লাকডিয়াকান্দি গ্রামের মো. আব্দুল গণির ছেলে।

র‌্যাব-৭ এর কক্সবাজার ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর মো. মেহেদী হাসান বলেন, ‘র‌্যাব গোপন সূত্রে জানতে পারে উখিয়ার চোয়ানখালির রাসেল ষ্টোরের সামনে মেরিন ড্রাইভ পাকা রাস্তার উপর কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাবের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়।

এ সময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পাচারকারী আইসিডিডিআরবির চিকিৎসক মেরাজ উদ্দিন ও আইসিডিডিআরবির কর্মচারী মো. মোক্তার হোসেনকে (৩৬) পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টাকালে তাদের আটক করে। পরে তাদের দেহ তল্লাশী করে ৯ হাজার ৮০০টি ইয়াবা পাওয়া যায়।

মোক্তার নরসিংদী জেলার রায়পুরা থানার কড়াইপুর পাহাড়তলা গ্রামের মৃত ধন মিয়া প্রকাশ ফারুক মিয়ার ছেলে। আটকদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।’

অপরদিকে, ল্যাপটপে লুকিয়ে পাচারকালে মো: আবু সুফিয়ান (২৮) নামের এক কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারকে দুই হাজার ইয়াবাসহ আটক করেছে মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ। আটককারী যুবক ঢাকাগামী যাত্রীবাহী গ্রীণ লাইন পরিবহণের যাত্রী ছিলেন। বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কস্থ উপজেলার ফাঁসিয়াখালীর হাঁসেরদীঘি এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক ইঞ্জিনিয়ার আবু সুফিয়ান দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলার পলীপাড়া এলাকার ওবাইদুর রহমানের ছেলে।

মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের (এসআই) জসিম উদ্দিন বলেন, যাত্রীবাহী গ্রীণ লাইন পরিবহণ (ঢাকামেট্রো ব-১৪-১০৭২) করে কক্সবাজার থেকে ঢাকা যাচ্ছিল আবু সুফিয়ান নামের এক কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার যুবক। ইয়াবা পাচারের পুলিশ গোপন সংবাদ পেয়ে উল্লেখিত স্থানে বাসটি থামিয়ে তল্লাসী চালালে ওই সময় সন্দেহজনক ভাবে যুবক আবু সুফিয়ান ব্যবহ্নত ল্যাপটপ ভেতরে বিশেষ কায়দায় লুকানো অবস্থায় ২ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করে। এ সময় ইয়াবা ও ল্যাপটপ জব্ধ করে তাকে আটক করা হয়।

আটক পাচারকারীর বিরুদ্ধে মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের এটি এস আই আবদুল হাকিম বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট আইনে থানায় মামলা রুজু করে আসামীকে চকরিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।