ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ আগস্ট ২০২২

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সেবা মিলবে সেপ্টেম্বরে

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-২৪ ১৩:০২:৫৩ || আপডেট: ২০১৮-০৭-২৪ ১৩:০২:৫৩

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সেবা মিলবে সেপ্টেম্বরে

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১-এর বাণিজ্যিক কার্যক্রম আগামী সেপ্টেম্বর থেকে শুরু করবে বাংলাদেশ কমিউনিকেশন্স স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিডেট (বিসিএসসিএল)। যতদ্রুত সম্ভব আয়ে যেতে আগে থেকেই বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে কোম্পানিটি। এরই মধ্যে সরকারের বিভন্ন মন্ত্রণালয় ও দেশি-বিদেশি ৫৮টি সংস্থার কাছে দেশের প্রথম স্যাটেলাইটের সেবা নিতে চিঠি দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি সরাসরি যোগাযোগও রক্ষা করা হচ্ছে কোম্পানিটির পক্ষ থেকে। সাড়াও মিলছে ইতিবাচক। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সেবা নেওয়ার জন্য তাদের সঙ্গে চুক্তি করেছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। চুক্তি অনুযায়ী সেপ্টেম্বর থেকে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন সংস্থার অধীনে বন্দর, ফেরিঘাট, জাহাজ ও অন্যান্য স্থাপনায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সেবা দেবে। ফলে বাংলাদেশের সমুদ্র ও স্থানীয় নদী চ্যানেলগুলোয় থাকা জাহাজগুলো স্থলভাগের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ, দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবাগ্রহণ ও টেলিভিশন দেখা যাবে।

নৌযানের নিরাপত্তা, অত্যাধুনিক ও নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ ব্যবস্থার পাশাপাশি টেলিযোগাযোগের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে বলেও জানানো হয়। জাহাজে অবস্থানরত নাবিক ও যাত্রীরা সার্বক্ষণিক টেলিযোগাযোগের সুবিধাও ভোগ করতে পারবেন। এ ছাড়া বিভিন্ন নৌবন্দর ও বাতিঘরেও এ স্যাটেলাইটের মাধ্যমে টেলিযোগাযোগ সেবা দেওয়া হবে। বঙ্গোপসাগরে বছরে প্রায় ৩৯ হাজারেরও বেশি দেশি-বিদেশি জাহাজ যাতায়াত করে। চুক্তি অনুসারে তারা সবাই এ সুবিধা পাবে। শুধু এই একটি খাত থেকেই বিসিএসসিএলের আয় হবে প্রায় ৪২ কোটি টাকা। এ ছাড়াও নৌ মন্ত্রণালয়ের পর বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর সেবায় নেওয়ার পরের তালিকায় রয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়। তথ্য মন্ত্রণালয় তো আছেই, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় নেবে ই-লার্নিংবিষয়ক সেবার সুবিধা। জনপ্রশাসন, স্বরাষ্ট্র এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে তাদের চাহিদার কথা জানানো হয়েছে। গত ১১ মে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে দেশের প্রথম স্যাটেলাইটটি মহাকাশে উৎক্ষেপণ করা হয়। সব মিলে এতে খরচ হয়েছে দুই হাজার ৭৬৫ কোটি টাকা। আগামী সাত বছরের মধ্যে এ খরচ উঠে আসবে বলে মনে করেছে প্রকল্পের দায়িত্বে থাকা সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। এ বিষয়ে বিসিএসসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘স্যাটেলাইটটির মেয়াদ হবে ১৫ বছরের। ফলে এর সর্বোচ্চ ব্যবহার করতেই বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।’ তিনি জানান, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট থেকে ১৬০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডউইডথ পেয়েছে দেশ। তারা স্যাটেলাইট থেকে সেবা নিতে ৪৫টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে চিঠি দিয়েছেন। আর বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠি দেওয়ার পাশাপাশি তাদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করা হচ্ছে। এ প্রক্রিয়া ধারাবাহিকভাবে অব্যাহত থাকবে। জানা গেছে, দেশের সরকারি-বেসরকারি অনেক ব্যাংক ভিস্যাটের মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা নেয়। এসব প্রতিষ্ঠানকে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর সেবা নিতে আগ্রহী করতে কাজ করছে বিসিএসসিএল। আর এ জন্য তারা অর্থ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা নিচ্ছে। সেপ্টেম্বর থেকেই এ সেবা দেওয়ার বিষয়টি যাতে শুরু করা যায় তার জন্য চেষ্টা চলছে বলে জানান এমডি মো. সাইফুল ইসলাম।-আমাদের সময়