ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২

টেকনাফে ২জনকে নৃশংসভাবে খুন, ১২জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের

প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১৫ ২৩:০৪:৪৩ || আপডেট: ২০১৮-০৭-১৫ ২৩:০৪:৪৩

হুমায়ূন রশিদ, টেকনাফ:

টেকনাফের হ্নীলায় মরহুম আবুল কাশেমের পুত্র শামসুল হুদাকে জবাই করে হত্যার অভিযোগে তালিকাভূক্ত ইয়াবা চোরাকারবারী ও অস্ত্রধারীকে প্রধান আসামী এবং অপর দুই ইউপি মেম্বারসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হলেও বাদীপক্ষ নিরাপত্তাহীনতা ভূগছে।

জানা যায়, ১৫ জুলাই বিকালে হ্নীলা ইউপি মেম্বার নুরুল হুদার মা নিহতের মা নবীন সোনা ছেলে শামসুল হুদাকে নৃশংসভাবে খুনের ঘটনায় টেকনাফ মডেল থানায় উপস্থিত থেকে বাদী হয়ে হ্নীলা আলীখালীর জামাল হোছন মেম্বারের ২য়পুত্র শাহ আজম (২৫) প্রকাশ ইয়াবা আজম, দক্ষিণ লেদার মৃত আবু বক্কর মেম্বারের পুত্র রাসেল প্রকাশ রাসেইল্যা (৩২), আলীখালীর মৃত হায়দর আলীর পুত্র জামাল হোছন মেম্বার, পশ্চিম লেদার মৃত আবু বক্কর মেম্বারের পুত্র আবছার কামাল ছিদ্দিকী (৩৮), মৃত আব্দুস সোবহানের পুত্র জাফর আলম মেম্বার (৪৮), মৃত হায়দর আলীর পুত্র জামাল হোসেন (৫০), আলীখালীর জামাল হোছন মেম্বারের পুত্র শাহ নেওয়াজ (২৭), শাহ জালাল জুয়েল (২১), দক্ষিণ আলীখালীর রশিদ মিয়ার পুত্র হারুন (২৮), দক্ষিণ লেদার আবছার কামাল ছিদ্দিকীর স্ত্রী মর্জিনা আক্তার (২৮), আলীখালীর জামাল হোছন মেম্বারের স্ত্রী খুরশিদা বেগম ও মকবুল আহমদের পুত্র জুহুর আলম (৩২) সহ অজ্ঞাতনামা ৬/৭ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলার এজাহার দায়ের করা হয়েছে।

এই ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) এসএম আতিকুল্লাহ জানান, উক্ত ঘটনায় নিহত শামসুল হুদার মা বাদী হয়ে ১২ জনকে নামীয় ৬/৭জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করা হয়েছে। যার নং-টেক-২৬/১৫-০৭-১৮ ইং।

এদিকে চাঞ্চল্যকর এই ডাবল হত্যা মামলা হতে প্রধান আসামী বাদ যাওয়ার জন্য কোটি টাকার মিশন আর ভারী অস্ত্রের মহড়ায় বাদী পক্ষকে আরো ভীতি প্রদর্শন করে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।