ঢাকা, রোববার, ২২ মে ২০২২

মহেশখালীতে পুলিশ-সন্ত্রাসী বন্দুক যুদ্ধ, অস্ত্রসহ আটক ৫

প্রকাশ: ২০১৮-০৫-০৪ ১৮:৩৫:০৫ || আপডেট: ২০১৮-০৫-০৪ ১৮:৩৫:০৫

মহেশখালীতে পুলিশ-সন্ত্রাসী বন্দুক যুদ্ধ, অস্ত্রসহ আটক ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নে পুলিশ ও সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটেছে। এসময় পুলিশ অভিযান চালিয়ে ঘটনাস্থল থেকে ৫টি দেশীয় তৈরী এলজি বন্দুক ও ৭ রাউন্ড গুলিসহ ৫ সন্ত্রাসীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে।

বৃহস্পতিবার(৩ মে) রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের কেরুনতলী নয়া পাড়াস্থ পাহাড়ি এলাকায় এ বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্র জানায়, একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী সড়ক ডাকাতির প্রস্তুুতি নেয়ার গোপন সংবাদ পেয়ে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রদীপ কুমার দাশ (পিপিএম)’র নেতৃত্বে একদল পুলিশ উক্ত এলাকার চতুর্দিকে ঘিরে ফেলে। সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি বর্ষণ করলে পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। ঘন্টাব্যাপী বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় সন্ত্রাসীরা ১’শ রাউন্ড গুলি ও পুলিশ ২’শ রাউন্ড পিস্তলের গুলিসহ ৪১ রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে।

এসময় সন্ত্রাসী গ্রুপের বেশ কিছু সদস্য পালাতে সক্ষম হলেও ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ওই এলাকার মেহের আলীর ছেলে সলিম উল্লাহ (৩৫), হাছন আলীর ছেলে মো মনির (২০), মৃত দুদু মিয়ার ছেলে আক্কেল আলী (৫২), শের আলীর ছেলে হাবিব উল্লাহ (২৩) ও আবু ছৈয়দের ছেলে মো: রফিক (২৪) নামের পাঁচ সন্ত্রাসীকে আটক করে।

এব্যাপারে পুলিশ বাদি হয়ে মহেশখালী থানায় সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়ের করেছে।